মুম্বই: লকডাউনে অনুশীলনে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ঘরে বসে নিজেকে ফিট রাখতে একেবারেই কসুর করছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মুম্বইয়ে নিজের বাড়ির জিমে নিয়মিত নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন রানমেশিন। মঙ্গলবার সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই জিম সেশনের একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন ভারত অধিনায়ক। যা দেখে তাজ্জব কোহলির ফ্র্যাঞ্চাইজি সতীর্থ তথা প্রোটিয়া কিংবদন্তি এবি ডি’ভিলিয়ার্স।

মঙ্গলবার বাড়ির জিমে ওয়েটলিফটিং সেশনের একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন ‘দিল্লি বয়’। ভিডিওটির ক্যাপশন হিসেবে বিরাট লেখেন, ‘ছিনিয়ে নাও, কোনওকিছুর জন্য অপেক্ষা করো না।’ কোহলির ওয়ার্ক-আউট সেশনের এই ভিডিও বেশ পছন্দ হয়েছে তাঁর ফ্যানেদের। নিজেকে ফিট রাখতে কোহলির এমন প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তারা। তালিকায় ছিলেন কোহলির আরসিবি সতীর্থ এবি ডি’ভিলিয়ার্স।

ফ্র্যাঞ্চাইজি অধিনায়কের অন্যতম বড় অনুরাগী ডি’ভিলিয়ার্স কোহলির ওয়ার্ক-আউট দেখে রীতিমতো তাজ্জব বনে গিয়েছেন। কয়েকটি ইমোজির মাধ্যমে ডি’ভিলিয়ার্স তাঁর মনের ভাব প্রকাশ করেন এদিন। ইমোজির মাধ্যমেই প্রাক্তন প্রোটিয়া উইকেটরক্ষ ব্যাটসম্যান তাঁর অবাক অভিব্যক্তি পরিস্ফুট করেন। একইসঙ্গে ইমোজির মাধ্যমেই কোহলিকে তিনি সাধুবাদও দিয়েছেন।

কোহলির সঙ্গে ডি’ভিলিয়ার্সের বন্ধুত্ব একাধিক সময় টক অফ দ্য টাউন হয়ে উঠেছে। আইপিএলে দু’জনের পার্টনারশিপও ক্রিকেট অনুরাগীদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। কিন্তু করোনার জেরে চলতি বছর কোহলি-ডি’ভিলিয়ার্স যুগলবন্দি থেকে বঞ্চিত ক্রিকেট অনুরাগীরা। অতিমারী করোনার জেরে আপাতত স্থগিত আইপিএল চলতি বছর অনুষ্ঠিত হবে কীনা সন্দেহ। তবে করোনার জেরে দুঃস্থ মানুষের সাহায্যার্থে সেই আইপিএল’কে সামনে রেখেই সম্প্রতি এক মহৎ উদ্যোগ নিয়েছেন ডি’ভিলিয়ার্স। যাতে শরিক হয়েছেন বন্ধু কোহলিও।

আইপিএলের নবম সংস্করণে বিরাট কোহলি-এবি ডি’ভিলিয়ার্সের ৯৬ বলে ২২৯ রানের ইনিংস আইপিএলের ইতিহাসে এখনও অবধি সর্বকালীন রেকর্ড হয়ে রয়েছে। করোনায় অর্থসাহায্যে ২০১৬ গুজরাত লায়ন্সের বিরুদ্ধে স্মরণীয় সেই ম্যাচের সংগৃহীত কিছু স্মারক গতমাসে যৌথভাবে নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিরাট কোহলি ও এবি ডি’ভিলিয়ার্স।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প