নয়াদিল্লি: মাঠে আর একবার আগ্রাসন দেখিয়ে আইসিসি-র ‘কোড অফ কনডাক্ট’ লঙ্ঘন করলে নির্বাসিত হতে হবে বিরাট কোহলিকে৷ বিশাখাপত্তনমে ২ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের প্রথম টেস্ট৷

গত রবিবার চিন্নাস্বামীতে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ টি-২০ ম্যাচে ‘কোড অফ কনডাক্ট’ লঙ্ঘন করে আইসিসি-র কাছে ভর্ৎসিত হন ভারত অধিনায়ক৷ চিন্নাস্বামীতে ব্যাটিং করার সময় রান নিতে গিয়ে প্রোটিয়া বোলার বিউরন হেনড্রিক্সের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান কোহলি৷ ম্যাচের পর বিরাট ম্যাচ-রেফারি রিচি রিচার্ডসনের কাছে দোষ স্বীকার করেছেন৷

২০১৬ সেপ্টেম্বর থেকে সংশোধিত কোড চালু হওয়ার পর থেকে তিনবার শৃঙ্খলা ভাঙেন কোহলি৷ এর ফলে বিরাটের মোট তিন ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছে৷ প্রথম ডেমেরিট পয়েন্ট হয় গত বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রিটোরিয়া টেস্টে৷ দ্বিতীয় ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয় ২০১৯ বিশ্বকাপে ভারত-আফগানিস্তান ম্যাচে৷

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন টেস্টের সিরিজ খেলবে ভারত৷ বিশাখাপত্তনম ছাড়াও পরের দু’টি টেস্ট পুণে ও রাঁচিতে৷ তার পর বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে তিনটি টি-২০ এবং দু’টি টেস্ট খেলবে কোহলি অ্যান্ড কোং৷ তারপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবোয়ে, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলবে ভারত৷

আইসিসি-র নিয়মে দু’ বছরের ব্যবধানে চার বা তার বেশি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হলে নির্বাসিত হবেন সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার৷ ফলে ২০২০-র ১৬ জানুয়ারির মধ্যে বিরাটের খাতায় আরও এক ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হলে সাসপেন্ড হতে পারেন ক্যাপ্টেন কোহলি৷