তিরুঅনন্তপুরম: ভুল শোধরানোর লক্ষণ নেই৷ টেকনিকে সমস্যা রয়েছে এটাও স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে এতদিনে৷ প্রায় প্রতি ম্যাচেই ক্যাচ ফেলছেন নিয়ম করে৷ তবে ডাকাবুকো ব্যাটিংয়ের জন্যই টিম ইন্ডিয়ার ভবিষ্যতের সম্পদ হিসাবে বিবেচিত হচ্ছেন ঋষভ পন্ত৷ যে কারণে তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানকে আগলে রাখাল প্রচেষ্টা দেখা যাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্টের মধ্যে৷

টেস্ট দলে ঋদ্ধিমান সাহার আড়ালে চলে গেলেও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ঋষভকে ক্রমাগত সুযোগ দিচ্ছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট৷ যদিও তাতে পন্তের আত্মবিশ্বাস ফেরার তেমন একটা ইঙ্গিত চোখে পড়ছে না৷ কোচ-ক্যাপ্টেন ধৈর্য্যশীল হলেও ধৈর্য্যের বাঁধ ভেঙেছে দর্শকদের৷ সেটাও প্রায় প্রতি ম্যাচেই প্রকট হচ্ছে ক্রমশ৷

আরও পড়ুন: দাপুটে জয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

ক্যাচ মিস হোক অথবা বাই-রান গলানো, এমন কি রিভিউ নেওয়ার ক্ষেত্রে ক্যাপ্টেনকে বিভ্রান্ত করার মতো ঋষভের প্রত্যেকটা ভুলের সঙ্গে সঙ্গেই গ্যালারির সমবেত ‘ধোনি-ধোনি’ চিৎকার শোনা যাচ্ছে৷ সিরিজ শুরুর আগেই ক্যাপ্টেন কোহলি এই প্রসঙ্গে পন্তের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন৷ বিরাট স্পষ্ট জানিয়েছিলেন যে, ঘরের মাঠে ঋষভের মতো তরুণ ক্রিকেটারকে সমর্থকদের উৎসাহিত করা উচিত৷ ধোনির নাম নিয়ে ওকে চাপে ফেলাটা অত্যন্ত অন্যায় এবং অসম্মানজনক৷

কোহিল এও জানিয়েছিলেন যে, কোনও ক্রিকেটারই জেনে শুনে ভুল করতে চায় না এবং কেউই দর্শকদের এমন আচরণ পছন্দ করেন না৷ তাই অনুরাগীদের কাছে কোহলি আবেদন জানিয়েছিলেন মাঠে এমন আচরণ না করার জন্য৷ তবে ছবিটা যে তাতেও বদলায়নি, তা বোঝা যায় গ্রিনফিল্ডের গ্যালারিতেই৷

আরও পড়ুন: ফিল্ডিং নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন কোহলি

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসের পঞ্চম ভারে ভুবনেশ্বর কুমারের চতুর্থ বলে পন্ত এভিন লুইসের ক্যাচ ছাড়ার পর আবার দর্শকরা ধোনির নাম নিয়ে পন্তের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ ছুঁড়ে দেন৷ যা নিয়ে কোহলিকে রীতিমতো ক্ষুব্ধ দেখায়৷ বাউন্ডারিতে ফিল্ডিং করা কোহলি দর্শদরে দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন তাঁরা কেন এমনটা করছেন৷ কোহলির শরীরি ভাষাতে বিরক্তির ছাপ ছিল স্পষ্ট৷