কলকাতা: টিম ইন্ডিয়া প্রথমবার দিন-রাতের টেস্ট খেলতে সম্মত হওয়া যাবৎ ভারতীয় ক্রিকেটমহলে গোলাপি বলে কৃত্রিম আলোয় ক্রিকেট খেলার চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে যায়৷ প্রায় সব ক্ষেত্রেই উঠে আসে দু’টি প্রসঙ্গ৷ প্রথমত, গোলাপি বলের বাড়তি স্যুইং৷ দ্বিতীয়ত, ফ্লাড লাইটের আলোয় গোলাপি বল যথাযথ দেখতে পাওয়া৷ বিশেষ করে দিনের আলো থেকে ম্যাচ ফ্লাডলাইটের আলোর বৃত্তে ঢুকে পড়ার মুহূর্তটাকে ব্যাটসম্যানদের কাছে সব থেকে চ্যালেঞ্জের বলে বর্ণনা করছেন বিশেষজ্ঞরা৷

আরও পড়ুন: ইডেনে দিন-রাতের টেস্ট নিয়ে উল্লেখযোগ্য কিছু তথ্য

ইতিমধ্যে যাঁরা গোলাপি বলে ক্রিকেট খেলেছেন তাঁরাও এক কথায় স্বীকার করে নিচ্ছেন সন্ধ্যার সময় বল দেখা একটু সমস্যার এবং ওই সময়টাতেই বল বাড়তি স্যুইং করতে শুরু করে৷ দিনের শেষে যে সময়টায় সূর্য্যের আলো ও ফ্লাড লাইটের আলো একই সঙ্গে বিরাজ করে মাঠে, সেই সময়টার চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিলেন বিরাট কোহলি৷ ইডেনে টিম ইন্ডিয়ার প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন পর্বে কোহলি টুইলাইট পরিস্থিতিতে নেটে একটানা ব্যাট করলেন মহম্মদ শামির বলে৷

আরও পড়ুন: ক্রিকেট উৎসবের আবহে কলকাতা এখন পিঙ্ক সিটি

ভারতীয় দল ইডেনে সন্ধ্যার সময় ঘণ্টা দু’য়েক অনুশীলন করে৷ এর আগে ইডেনে গোলাপি বলে দিন-রাতের ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে শামির৷ তাছাড়া বাংলার পেসারই এই মুহূর্তে টিম ইন্ডিয়ার সেরা পেস হাতিয়ার৷ দলের সেরা বোলারকে সন্ধ্যার সময় কোহলির সামলানোর ছবিটাই বলে দিচ্ছিল ডে-নাইট টেস্ট নিয়ে কতটা সতর্ক ভারত অধিনায়ক৷

আরও পড়ুন: গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট: জেনে নিন খুঁটি-নাটি

বিরাট কোহলি শুরু থেকেই বলে আসছেন যে, বিপক্ষের পেসাররা এমন পরিস্তিতিতে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলতে পারেন৷ বিরাট বাংলাদেশকে সমীহ করলেও সমর্থকদের বাজি একতরফা রয়েছে ভারতের দিকেই৷ বাংলাদেশের সামগ্রিক পারফরম্যান্সের দিকে তাকিয়ে ম্যাচ আদৌ তিন দিনের বেশি গড়াবে কি না, সে বিষয়ে সংশয়ে রয়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা৷ সেকারণেই ম্যাচের প্রথম তিন দিনের টিকিট শেষ হয়ে গেলেও এখনও খুঁজলে মিলতে পারে শেষ দু’দিনের টিকিট৷