দুবাই: নির্বাসন কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে আসে যাবৎ দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন স্টিভ স্মিথ। গত অ্যাশেজ সিরিজেই টেস্ট ক্রিকেটে কাম ব্যাক করেন প্রাক্তন অজি দলনায়ক। ফিরে এসেই বিরাট কোহলির কাছ থেকে আইসিসি ব়্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান ছিনিয়ে নেন স্মিথ। দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দু’টি টেস্ট সিরিজ হাতে পেলেও স্মিথের কাছ থেকে সিংহাসন পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয়নি কোহলির পক্ষে। তবে ঘরের মাঠে টাইগারদের হোয়াইটওয়াশ করার পর স্টিভ স্মিথের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছেন ভারত অধিনায়ক।

ইডেনে গোলাপি বলে ঐতিহাসিক দিন-রাতের টেস্টে অধিনায়কোচিত শতরানের পর স্টিভ স্মিথের সঙ্গে রেটিং পয়েন্টের ফারাক অনেকটাই কমিয়ে ফেলেছেন কোহলি। দুই তারকার মধ্যে এক সময় রেটিং পয়েন্টের পার্থক্য ছিল ২৫। বাংলাদেশ সিরিজের ষ পর স্মিথ ও কোহলির ব্যক্তিগত রেটিং পয়েন্টের ব্যবধান মাত্র ৩। স্মিথ নিজের অবস্থান আরও মজবুত করতে না পারলে অচিরেই আইসিসির এক নম্বর ব্যাটসম্যানের মুকুট পুনরায় নিজের দখলে নেবে ভারত অধিনায়ক।

আইসিসি’র সদ্য প্রকাশিত ব্যাটসম্যানদের তালিকায় স্টিভ স্মিথ যথারীতি এক নম্বরে রয়েছেন। তাঁর সংগৃহীত রেটিং পয়েন্ট ৯৩১। বিরাট কোহলি দ্বিতীয় স্থান ধরে রেখেছেন। তাঁর রেটিং পয়েন্ট ৯২৮। তৃতীয় স্থানে রয়েছেন কিউয়ি দলনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ব্যাটসম্যানদের প্রথম পাঁচে রয়েছে তিন জন ভারতীয়। চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছেন চেতেশ্বর পূজারা ও অজিঙ্কা রাহানে।

ব্যাটসম্যানদের প্রথম দশে ঢুকে পড়েছেন ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়াল। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অনবদ্য ডাবল সেঞ্চুরি করা ময়াঙ্ক এই মুহূর্তে আইসিসির ১০ নম্বর টেস্ট ব্যাটসম্যান। ময়াঙ্কের রেটিং পয়েন্ট এই মুহূর্তে ৭০০। রোহিত শর্মা অবশ্য ব্যক্তিগত র্যাংকিংয়ে পিছিয়ে ১৩ নম্বর স্থানে অবস্থান করছেন।

পর পর দু’টি টেস্ট সিরিজে জাতীয় দলের বাইরে থাকায় জসপ্রীত বুমরাহ বোলারদের তালিকা পিছিয়ে গিয়েছেন। তিনি রয়েছেন ৫ নম্বরে। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও মহম্মদ শামি যথাক্রমে বোলারদের তালিকার দশম ও একাদশতম স্থানে রয়েছেন। ব্যক্তিগত রেংকিংয়ে উন্নতি করেছেন রবীন্দ্র জাদেজা, ইশান্ত শর্মা ও উমেশ যাদব। জাদেজা ১৫, ইশান্ত ১৭ ও উমেশ ২১ নম্বরে উঠে এসেছেন। টেস্ট অল-রাউন্ডারের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান ধরে রেখেছে রবীন্দ্র জাদেজা। তবে পঞ্চম স্থানে নেমে গিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।