মোহালি: হারের জন্য কোন অজুহাত নয়, তবে ম্যাচের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মোড় হিসাবে ঘটনাটিকে বর্ণনা করলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি৷ যে মোড় থেকে ম্যাচের গতিপ্রকৃতি ভারতের দিকে মুখ ফেরাতে পারত বলে মনে করেন বিরাট৷ স্বাভাবিকভাবেই ঘটনাক্রম টিম ইন্ডিয়ার প্রতিকূলে যাওয়ায় হতাশ কোহলি৷

প্রথমত ইনিংসের ৩১ তম ওভারে কেদার যাদবের বলে এলবিডব্লিউ হন উসমান খোওয়াজা৷ আম্পায়ার আউট দিলেও খোওয়াজা রিভিউয়ের আবেদন করেন৷ বল ট্র্যাকিংয়ে দেখা যায় লেগ স্ট্যাম্প ছাড়িয়ে যাচ্ছিল বল৷ ফলে ফিরিয়ে নেওয়া হয় খোওয়াজার আউটের সিদ্ধান্ত৷ সেই মুহূর্তে ডিআরএস-এর যথার্থতা নিয়ে হাবেভাবে সংশয় প্রকাশ করতে দেখা যায় টিম ইন্ডিয়াকে৷ যদিও খোওয়াজা আউট হয়ে যান কিছুক্ষণ পরেই৷ ব্যক্তিগত ৮৫ রানে ডিআরএস-এর সাহায্য নিয়ে বেঁচে যাওয়া উসমান ৯১ রানের মাথায় আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন৷

আরও পড়ুন: সচিন-সেহওয়াগকে ছাপিয়ে রেকর্ডবুকে ভারতীয় ক্রিকেটের R-D

খোওজার ক্ষেত্রে ডিআরএস-এর আচরণ নিয়ে ভারত অধিনায়ক হতাশ হলেও পরে অ্যাস্টন টার্নারের বেলায় তা রীতিমত বিরাটের ক্ষোভ ও বিরক্তিতে পরিণত হয়৷ ইনিংসের ৪৪ তম ওভারে ব্যক্তিগত ৪১ রানে ব্যাট করা টার্নারের বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ড এর আবেদন জানায় ভারত৷ ডিআরএস-এর সাহায্য নিলেও ছবিটা স্পষ্ট হয়নি৷ স্নিকো মিটারে দেখা যায় বল টার্নারের ব্যাটের কানা নিয়েছে৷ অথচ তৃতীয় আম্পায়ার তাঁকে নটআউট ঘোষণা করেন৷ বিরাট রীতিমতো বিস্ময়ের ভঙ্গিতে আম্পায়ারের সঙ্গে এই নিয়ে কথাও বলেন৷

আরও পড়ুন: জঘন্য ফিল্ডিং ও অতি জঘন্য কিপিংয়ে লজ্জার হার ভারতের

মাঠেই বোঝাই যাচ্ছিল ডিসিশন রিভিউ নিয়ে ভারতীয় শিবির খুশি নয় মোটেই৷ ম্যাচের শেষে সেই ক্ষোভটা ধরা পড়ে কোহলির গড়ায়৷ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিরাট ডিআরএস-এর ধারাবিহকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এবং টার্নারের ক্ষেত্রে রিভিউয়ের সিদ্ধান্তটাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয় বলে মন্তব্য করেন৷ কোহলি বলেন, ‘আমাদের ফিল্ডিং মোটেও ভালো হয়নি৷ সুযোগগুলো কাজে লাগানো উচিত ছিল আমাদের৷ তবে ডিআরএসের সিদ্ধান্তটাও (টার্নারকে নটআউট দেওয়া) আমাদের সবাইকে অবাক করে৷ প্রতি ম্যাচেই ডিআরএস নিয়ে কথা উঠছে৷ এটা মোটেও ধারাবাহিক নয়৷ আমাদের কাছে ওই সিদ্ধান্তটা ম্যাচ ঘোরানো সিদ্ধান্ত হয়ে দাঁড়ায়৷ যদিও এটা আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে৷ যে বিষয়টা আমাদের আয়ত্ত্বে ছিল, সেটা যথাযথ করা উচিত ছিল আমাদের৷ তা না হলে সুযোগ হাতছাড়া হওয়া স্বাভাবিক৷’

আরও পড়ুন: রান তাড়া করে রেকর্ড জয় অস্ট্রেলিয়ার

উল্লেখ্য, টার্নারের বিরুদ্ধে ভারত ডিআরএস-এর আবেদন করার সময় জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ৩৯ বলে ৬৬ রান দরকার ছিল৷ টার্নার আউট হলে নিঃসন্দেহে কাজটা কঠিন হয়ে দাঁড়াত অজিদের৷ যদিও সিরিজে ডিআরএস নিয়ে প্রশ্ন ওঠা এই প্রথম নয়৷ রাঁচিতে অ্যারন ফিঞ্চের আউট হওয়া নিয়েও আলোচনার কেন্দ্রে ছিল ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম৷