বেঙ্গালুরু: দেশের জার্সিতে নেতৃত্ব দিয়ে সফল হলেও আইপিএলে দলকে সাফল্যের চূড়োয় তুলতে ব্যর্থ বিরাট৷ ২০১৯ আইপিএলেও খালি হাতে বিদায় নিচ্ছে বিরাটের নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর৷ শনিবার ঘরের মাঠে দ্বাদশ আইপিএলে শেষ ম্যাচ খেলতে নামছে কোহলি অ্যান্ড কোং৷ শেষ ম্যাচ খেলতে নামার আগে আপ অ্যান্ড ডাউন পারফরম্যান্সের জন্য সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের দুই তারকা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি ও এবি ডি’ভিলিয়ার্স৷

শনিবার চিন্নাস্বামীতে বিরাটদের প্রতিপক্ষ সানরাইজার্স হায়দরাবাদ৷ ১৩ ম্যাচে মাত্র চারটি জিতে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স টুর্নামেন্ট থেকে আগেই ছিটকে গেলেও প্লে-অফের আশা এখনও রয়েছে সানরাইজার্সের৷ তার জন্য অবশ্য শেষ ম্যাচে বিরাটদের হারাতেই হবে কেন উইলিয়ামসনদের৷ ১৩ ম্যাচে সানরাইজার্সের পয়েন্ট ১২৷ অর্থাৎ বিরাটদের হারিয়ে ১৪ পয়েন্ট পেলে প্লে-অফের আশা থাকবে গতবারের রানার্সদের৷ সেক্ষেত্রে চতুর্থ দল হিসেবে প্লে-অফ কোন দল যাবে, তার জন্য অপেক্ষা করতে লিগের শেষ ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও কলকাতা নাইটরাইডার্সের লড়াই পর্যন্ত৷

বিরাট-এবিডিদের কাছে অবশ্য শেষ ম্যাচ সম্মানের লড়াই৷ জয় দিয়েই মরশুম শেষ করতে চাই আরসিবি৷ আগের ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে বৃষ্টিতে পাঁচ ওভারের লড়াইও শেষ হয়নি৷ ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় দুই দল এক পয়েন্ট করে পেয়েছে৷ সেই ম্যাচেও সমর্থকরা পাশে থাকায় উচ্ছ্বসিত এবিডি৷ তিনি বলেন,‘শেষ মাচ ছিল পাঁচ ওভারের গেম৷ রেজাল্ট না-হলেও এই ম্যাচ আমার জীবনের অন্যতম স্মরণীয় ম্যাচ৷’

দ্বাদশ আইপিএল শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি বিরাটদের৷ টানা প্রথম ছ’টি ম্যাচ হারায় শুরুতেই প্লে-অফের আশা কার্যত শেষ হয়ে গিয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের৷ তারপর শেষ সাতটি ম্যাচের মধ্যে চারটি জিতলেও প্লে-অফের সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়৷ ১৩ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট লিগ টেবলে এখন ‘লাস্ট বয়’ বিরাটরা৷ সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে তাই শেষ লড়াই জিতে সমর্থকদের পাশে থাকার প্রতিদান দিতে চান বিরাট-এবিডি৷