লখনউ:  নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে ফুঁসছে গোটা দেশ৷ বিক্ষোভের ভয়ঙ্কর ছবি উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন এলাকায়৷ উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লখনউতে পথে নেমে আন্দোলনে সামিল হয়েছেন বহু মানুষ৷ উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ৷ পুলিশকে লক্ষ্য করেও পাথর ছোঁড়ার অভিযোগ ওঠে৷ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে একের পর এক পুলিশের গাড়ি। শুধু গাড়ি নয়, জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে একের পর এক পুলিশ ফাঁড়ি। আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে বহু সরকারি বাস, দমকলের গাড়ি।

অন্যদিকে, লখনউতে আক্রান্ত সংবাদমাধ্যমও। লখনউতে বিভিন্ন জায়গায় সংবাদমাধ্যমের ওবি ভ্যান পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। মারধর করা হয়েছে সংবাদমাধ্যমের লোকজনকেও। পুলিশের সামনেই বিক্ষোভকারীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ। পুরো পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলেও পুলিশের তরফে কোনও ব্যবস্থাই নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

জানা গিয়েছে, আন্দোলনকারীরা মুখে কালো কাপড় বেঁধে লখনউ জুড়ে এই তাণ্ডব চালাচ্ছে। যদিও এই ঘটনার পর গোটা উত্তরপ্রদেশ জুড়ে ১৪৪ জারি করা হয়েছে। অন্যদিকে, অশান্তি রুখতে দিল্লির বিভিন্ন এলাকায় জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা৷ প্রশাসনের নির্দেশ ভেঙে জমায়েতের জন্য রাজধানী দিল্লিতে একশোরও বেশি আন্দোলনকারীকে আটক করা হয়েছে৷ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়ে পড়েছে বেঙ্গালুরুতেও৷ বৃহস্পতিবার সকালে বেঙ্গালুরুর রাস্তায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে আটক হয়েছেন ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ৷ এছাড়াও ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল করার অভিযোগে আরও ৩০ জনকে আটক করেছে বেঙ্গালুরু পুলিশ৷

দিল্লির বিভিন্ন এলাকায় ক্রমেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে সোচ্চার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ৷ অপ্রীতিকর পরিস্থিতি রুখতে ইতিমধ্যেই দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্ত এলাকা সিল করে দেওয়া হয়েছে৷ উত্তরপ্রদেশের সম্ভলে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে আন্দোলনে সামিল হয়েছে জনতা৷ আন্দোলনের নামে দুটি বাসে আগুন ধরানোর অভিযোগ ওঠে আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে৷ অশান্তির কালো মেঘ গুজরাতের আহমেদাবাদেও৷ আহমেদাবাদেও পথে নেমে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরুদ্ধে আন্দোলনে সামিল হয়েছেন সাধারণ মানুষ৷

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I