ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: উত্তর ২৪ পরগনার কাঁকিনাড়ায় ফুচকা বিক্রেতা লালা চৌধুরীর খুনের ঘটনায় ফের উত্তপ্ত ভাটপাড়া। নৃশংস ওই খুনের ঘটনায় এখনো ধরা পড়েনি দুষ্কৃতীরা৷ ক্ষোভে ফুঁসছে কাঁকিনাড়া ৬ নম্বর গলি কাছারি রোডের বাসিন্দারা। গত ২ মাসে ভাটপাড়ায় রাজনৈতিক সংঘর্ষে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে সবচেয়ে নৃশংস খুনের ঘটনা ঘটেছে বুধবার।

ফুচকা বিক্রেতা লালা চৌধুরীর মৃতদেহের ধড় উদ্ধার করা হয় কাঁকিনাড়া ২৯ নম্বর রেল গেট সংলগ্ন এলাকা থেকে। এরপর ঘটনাস্থল থেকে অন্তত ২৫ কিমি দূরে বারাসাতে লোকাল ট্রেনের ভেন্ডর কামরা থেকে উদ্ধার করা হয় তার কাটা মুন্ডুটি। ঘটনার নৃশংসতায় ক্ষোভে ফুঁসছে লালা চৌধুরীর প্রতিবেশীরা। লালা চৌধুরী ছিলেন পরিবারের একমাত্র রোজগেরে।

ভাটপাড়ার বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, সে বিজেপি সমর্থক ছিল। রাজনৈতিক শত্রুতা না ব্যাক্তিগত শত্রুতা এই ঘটনার পিছনে রয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট হয়নি পুলিশের কাছে৷

আরও পড়ুন : বিতর্কের মাঝেই সিঁদুর-মঙ্গলসূত্র পরে রথযাত্রায় সামিল নুসরত

ভাটপাড়ার বাসিন্দাদের বক্তব্য, ভাটপাড়া নামেই আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে সবার মধ্যে। কে কখন খুন হচ্ছে কিছু বোঝা যাচ্ছে না। মানুষের জীবনের কোন নিরাপত্তা নেই। সাধারন মানুষ যখন তখন মারা যাচ্ছে। নেতারা আসছে, কথা বলে চলে যাচ্ছে। কিন্তু সাধারন মানুষের নিরাপত্তা কোথায় ?”

এদিকে লালা চৌধুরী খুনের ঘটনায় কাঁকিনাড়া এলাকায় বৃহস্পতিবার দিনভর ব্যবসা বন্ধ রেখেছেন এলাকার বাসিন্দারা। ভাটপাড়া এলাকা জুড়ে চলছে পুলিশি টহল। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত চলছে৷