প্রতীকী ছবি

লখনউ: সিএএ বিরোধী আন্দোলনকে ঘিরে আবারও সরগরম যোগী রাজ্য। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রতিবাদে রীতিমত রণক্ষেত্র হয়ে উঠল উত্তর প্রদেশের আলিগড়। বিক্ষোভকারীদের সরানোর জন্য কাঁদানে গ্যাস এবং লাঠিচার্জ করতে হয় পুলিশকে। শুধু তাই নয় উত্তেজনা যাতে কোনওভাবে না ছড়ায় সে কথা মাথাতে রেখে বন্ধ রাখা হয় ইন্টারনেট পরিষেবাও।

রবিবার বিকেল থেকেই আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের সঙ্গে পুলিশি সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল। ডিএম চন্দ্রভানু সিংয়ের মতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা পাথর ছোঁড়ার জন্য দায়ী। আর সেই কারণেই পরিস্থিতি জটিল হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন যে সকল সরকারি সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে তার দাম পড়ুয়াদের থেকে নেওয়া হবে।

পড়ুয়ারা পুলিশের গাড়িতে প্রথমে আক্রমণ করেছিল। যে কারণে বাধ্য হয়ে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয়েছিল বলে দাবি। সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, এদিন ভীম আরমি সদস্যদের একটি মিছিলে পুলিশি বাধা দেওয়ার পরেই ক্রমে অশান্তি ছড়িয়ে পরে। এমনিতেই এই আইন পাশ হওয়ার পরে সব থেকে বেশি বিক্ষোভ হয়েছিল উত্তর প্রদেশে।

শুধু বিক্ষোভ নয়, পাশাপাশি প্রাণ গিয়েছিল অনেকেরই। আবারও এই বিক্ষোভ সামনে আসাতে বোঝা গেল পরিস্থিতি উত্তপ্তই রয়েছে। এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও।