স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: মার্চের শেষ দিনে বাঁকুড়ার তাপমাত্রা ক্রমশ উর্দ্ধমূখী। ১২ এপ্রিল বাঁকুড়ার দুই লোকসভা কেন্দ্রে ভোট। সেই সময়ের তাপমাত্রা কি হবে সহজেই অনুমেয়। তাই গ্রামে ভোটকেন্দ্রের দাবি না মিটলে কার্যত ‘ভোট বয়কটে’র হুঁশিয়ারি দিলেন বাঁকুড়ার শালতোড়ার গোবিন্দপুর গ্রামের মানুষ।

তাদের দাবী, গ্রাম থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার দূরে সিঙ্গির গ্রামে গিয়ে ভোট দিতে হয়। অথচ গোবিন্দপুর থেকে সামান্য দূরে মাজিদ গ্রামে একটি ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থাকলেও সেখানে গ্রামের কোন ভোটারের নাম নেই।

তাই ঐ সময় গ্রামের বয়স্ক ও মহিলাদের ৪ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ভোট দিতে যাওয়া সম্ভব নয়। বিষয়টি তারা প্রশাসনকে জানিয়েছেন বলে জানান।

গ্রামবাসী জবা লায়েক বলেন, এই গরমে অতো দূরে গিয়ে আমাদের ভোট দিতে যাওয়া সম্ভব নয়। অন্যান্য ভোটে গ্রামের অনেকে ভোট দিতে যান না দাবী করে তিনি বলেন, এবার গ্রামে ভোট কেন্দ্র না হলে আমরা কেউই ভোট দিতে যাব না।

জেলা মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক তথা জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, এনিয়ে ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট ”বি.ডি.ও এবং থানা রিপোর্ট পাঠিয়েছে। গোবিন্দপুর গ্রামের ২-৩ কিলোমিটারের মধ্যে একটি ভোটগ্রহণ কেন্দ্র রয়েছে। কিন্তু ঐ গ্রামের মানুষ চাইছেন গোবিন্দপুরেই ভোটগ্রহণ কেন্দ্র করা হোক।”

গ্রামবাসীদের দাবী ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশনের নজরে এসেছে। নির্বাচন কমিশনের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, গোবিন্দপুর গ্রামের মানুষের দাবি খতিয়ে দেখা হবে। ‘এমনটা হওয়ার কথা নয়’ জানিয়ে তিনি বলেন, সেরকম দরকার হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।