নয়াদিল্লি: ব্যাটিং, বোলিং এবং ফিল্ডিং। থ্রি-ডি ডায়মেনশন হিসেবে জাতীয় দলে ক্রমেই অপরিহার্য হয়ে উঠেছে বিজয় শংকর। রায়ডুর পরিবর্তে তামিল অল-রাউন্ডারের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা করে নেওয়া প্রসঙ্গে এমনটাই জানিয়েছিলেন নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদ।

তবে বিশ্বকাপের দল থেকে বাদ পড়ে নির্বাচক প্রধানের এই যুক্তির পালটা হিসেবে কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন অম্বাতি রায়ডু। এমএসকে প্রসাদের যুক্তির পরিপ্রেক্ষিতে মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান তাঁর বিশ্বকাপ দেখার পরিকল্পনা ভাগ করে নিয়েছিলেন অনুরাগীদের সঙ্গে। হতাশ রায়ডু টুইটারে লিখেছিলেন, ‘বিশ্বকাপ দেখার জন্য নতুন 3D গ্লাসের সেট অর্ডার করলাম।’ স্বল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় বিশ্বকাপের দল নির্বাচন প্রসঙ্গে রায়ডুর এই টুইট।

গত দু’বছরে চার নম্বরে ধারাবাহিক ভাবে ভালো ব্যাট করেও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ান-ডে সিরিজে আশানরুপ পারফরম্যান্স দিতে পারেননি। সর্বোপরি ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজে চূড়ান্ত খারাপ পারফরম্যান্স বিশ্বকাপের দলে সুযোগের প্রশ্নে রায়ডুকে বেশ কিছুটা পিছনে ফেলে দেয়। পাশাপাশি মেগা টুর্নামেন্টের আগে বেশ কিছু ইতিবাচক পারফরম্যান্সে বিশ্বকাপের দলে সুযোগ করে নেন বিজয় শংকর।

দল নির্বাচন নিয়ে রায়ডুর টুইট প্রসঙ্গে এতদিন কোনওরকম মন্তব্য না করলেও অবশেষে মুখ খুললেন হায়দরাবাদি অল-রাউন্ডার। ‘ব্রেকফাস্ট উইথ চ্যাম্পিয়ন’ অনুষ্ঠানে সঞ্চালক গৌরব কাপুরের প্রশ্নের উত্তরে সম্প্রতি বিজয় জানান, ‘আমি জানি দলে সুযোগ না পেলে একজন ক্রিকেটার মানসিকভাবে কতটা বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। আমি একজন ক্রিকেটারের দৃষ্টিকোণ থেকেই পুরো বিষয়টি বোঝার চেষ্টা করেছি। আমার মনে হয় রায়ডু আমাকে উদ্দেশ্য করে কথাটা বলেনি।’ একইসঙ্গে বিজয়ের সংযোজন, ‘আমি জানি ওই মুহূর্তে ওর মানসিক অবস্থা কেমন ছিল। তবে এটা যে কোনও ক্রিকেটারের জন্য ইতিবাচক।’

এদিকে লন্ডনে পৌঁছে দ্বিতীয় দিনের নেট সেশনে ডান হাতে চোট পেয়েছেন বিজয় শংকর। প্রাথমিক ভাবে উদ্বেগ ছড়ালেও স্ক্যান রিপোর্টে স্বস্তি ফিরেছে ভারতীয় শিবিরে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে তামিল অল-রাউন্ডার মাঠে নামতে না পারলেও স্ক্যান রিপোর্টে চিড় ধরার উল্লেখ নেই। তাই খুব শীঘ্রই টিম ফিজিও প্যাট্রিক ফারহার্টের তত্ত্বাবধানে সম্পূর্ণ ম্যাচ খেলার অবস্থায় চলে আসবেন বিজয় শংকর, এমনটাই মনে করছে টিম ম্যানেজমেন্ট।