লন্ডন: ভারতে ফরানো হচ্ছে বিজয় মালিয়াকে৷ তার প্রত্যর্পণে সিলমোহর দিয়েছে ব্রিটিশ হোম সেক্রেটরি৷ ৯ হাজার কোটি টাকার ঋণখেলাপি মামলায় অভিযুক্ত লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়া৷ তবে এই নির্দেশের বিরুদ্ধে ১৪ দিনের মধ্যে ফের আবেদন জানাতে পারেন মালিয়া৷

গত ১০ই ডিসেম্বর লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়াকে ভারতে ফেরানোর পক্ষে রায় দেয় ব্রিটিশ আদালত। ভারতের তদন্তকারী সংস্থা সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের আবেদনের ভিত্তিতে ব্রিটেনের ওয়েস্ট মিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট বিজয় মালিয়াকে ফেরানোর পক্ষে রায় দিয়েছিল।

তবে আদালতের নির্দেশ ছিল ওই রায়ের বিরুদ্ধে ১৪ দিনের মধ্যে উচ্চ আদালতে আবেদন জানাতে পারবেন মালিয়া। সেই মত আবেদন করেন ঋণখেলাপি মামলায় অভিযুক্ত লিকার ব্যারন৷ কিন্তু আবেদন গ্রাহ্য হয়নি৷ তার প্রত্যর্পণ সিলমোহর দেয় ব্রিটিশ হোম সেক্রেটরি৷ ফলে ভারতেই ফিরতে হচ্ছে বিজয় মালিয়াকে৷

৬২ বছরের মালিয়া ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলি থেকে ৯ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে শোধ না করে ইংল্যান্ড চলে গিয়েছিল৷ এরপর এক বছর আগে লন্ডনে গ্রেফতার হন পলাতক ঋণখেলাপি শিল্পপতি৷ এর পর ২০১৭-র বছর ডিসেম্বর থেকে লন্ডনের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মালিয়ার বিচার শুরু হয়।

নয়াদিল্লির দাবি ছিল বিজয় মালিয়াকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হোক৷ দেশের ফিরতে হবে৷ তদন্তের মুখোমুখি বসতে হবে খবর পেয়েই বেঁকে বসেন বিজয় মালিয়া৷ অভিযোগ করতে থাকেন ভারতীয় জেলগুলি অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর। নয়াদিল্লির তরফে মালিয়ার জন্য বিশেষ জেলের ব্যবস্থার আশ্বাসও দেওয়া হয়৷ মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলের ১২ নম্বর ব্যারাকের ভিডিও দেখানো হয় লন্ডনের বিচারপতিকে। সেখানকার ব্যবস্থাপনা দেখে তিনি প্রাথমিকভাবে সন্তুোষ প্রকাশ করে ব্রিটিশ আদালত।

ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে এই ইঙ্গিত পেতেই ১০০ শতাংশ ঋণ মিটিয়ে দিতে উদ্যোগী হন মালিয়া৷ তবে তাতে রাজি হয়নি ভারত৷ এদিন ব্রিটিশ প্রশাসনের রায়ও যায় মালিয়ার বিরুদ্ধে৷ ফলে তাকে ফিরতেই হচ্ছে ভারতে৷

সামনেই লোকসভা ভোট৷ ঋণখেলাপি মালিয়া, মেহুল চোকসি, রাফায়েল সহ নানা ইস্যুতে কেন্দ্রের শাসক দলের বিরুদ্ধে তোপ দাগে কংগ্রেস৷ বিজয় মালিয়াকে প্রত্যপর্ণে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দফতরের নির্দেশ ভোটের আগে গেরুয়া শিবিরকে মাইলেজ দেবে বলে মনে করা হচ্ছে৷