স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: উস্কানিমূলক ভাষণের অভিযোগ তুলে পুলিশের দায়ের করা মামলায় আদালতে বিজেপির কৈলাশ বিজয়বর্গী। আইনজীবি তথা বিজেপি নেতা নীলাঞ্জন রায় এদিন জানিয়েছেন যে পুলিশ কৈলাশজীর বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ করেছিল। বেলা ২টা নাগাদ এই মামলার শুনানি শুরু হবে বলেও তিনি জানান।

এই মামলায় গত মার্চ মাসে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা বিচারক কৈলাশজীর আগাম জামিন মঞ্জুর করেছেন। আগাম জামিন মঞ্জুর করে জেলাবিচারক নির্দেশ দিয়েছিলেন যে একুশ দিনের মধ্যে নিম্ন আদালতে হাজির হওয়ার। সেই নির্দেশানুসারেই সোমবার তাঁর বালুরঘাটের মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজিরা।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারে কৈলাশ বিজয়বর্গীর বিরুদ্ধে পুলিশ স্যুয়োমোটো মামলা দায়ের করেছিল। তাতে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনামূলক বক্তব্য রাখার ও এলাকায় অশান্তি বাঁধানোর চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে।

বালুরঘাট পিএস ১৬২/২০১৮ নম্বরের সেই মামলায় ১৫৩/এ ২৯৫/এ ২৯৮ ৫০৯ ও ৩৪ আইপিসি ধারায় পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিটও পেশ করে গত ফেব্রুয়ারি মাসে। সোমবার সেই মামলায় বালুরঘাট আদালতে হাজিরা দেন কৈলাশ বিজয়বর্গী৷

পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারে ২০১৮ সালের ৯মে বালুরঘাটের কামারপাড়ায় জনসভা করেছিলেন কৈলাশ বিজয়বর্গী। অভিযোগ সেই সভায় তিনি সংখ্যালঘু বিশেষ করে মুসলিমদের ভাবাবেগে আঘাত করেছিলেন। পাশাপাশি রাজ্য সরকারের উচ্চস্তরের পদাধিকারীদের বিরুদ্ধেও অসম্মানজনক ভাষার প্রয়োগ করেছিলেন বলে পুলিশের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে। সেদিনের সভার বক্তব্য নিয়ে ব্যক্তিগত ভাবে কেউ কারও কোন আপত্তি না উঠলেও পুলিশ তা সুয়োমোটো এফআইআর করেছে বলে বিজেপির অভিযোগ।

বালুরঘাট পিএস ১৬২/২০১৮ নম্বর এফআইআর-এ কৈলাশ বিজয় বর্গী সহ আরও চারজনের নাম রয়েছে। তাঁরা হলেন জেলার প্রাক্তন তিন সভাপতি গৌতম চক্রবর্তী প্রণব চৌধুরী বিশ্বনাথ পাল ও বর্তমান সভাপতি শুভেন্দু সরকার।