মুম্বই: যে করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সারা বিশ্ব ত্রস্ত হয়ে আছে সেই মারণ ভাইরাসকেই ধন্যবাদ জানালেন অভিনেত্রী বিদ্যা বালন। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের রোজ সারা বিশ্বে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। সেখানে সেই ভাইরাস সম্পর্কে বিদ্যার এমন মনোভাব দেখে নেটিজেনরা তাঁর উপরে বেজায় চটেছেন।

সম্প্রতি অভিনেত্রী বিদ্যা বালন ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেখানেই বিদ্যা করোনা ভাইরাসকে ধন্যবাদ জানান। ভিডিওটির দাবি, করোনা ভাইরাস মানুষকে বড়ো শিক্ষা দিয়েছে। যে বিলাসিতা তাঁরা ব্যবহার করে তার মর্ম দিতে শিখেছে মানুষ। আগে সব কিছুকেই মানুষ টেকেন ফর গ্র্যান্টেড করত। প্রকৃতির উপর মানুষ কতটা নির্ভরশীল তা বুঝতে শিখিয়েছে করোনা। মানুষ সমস্ত কিছুতেই কত ব্যস্ত হয়ে আসল জিনিসগুলি এবং পরিবারকে ভুলে গিয়েছিল।

সেই ভিডিওর মহিলা কণ্ঠ বলছেন, ধন্যবাদ যানবাহন বন্ধ করে দেওয়ার জন্য। কারণ পৃথিবী থেকে বহুদিন পরে দূষণ চলে যাচ্ছে। এই ভাইরাসের জন্যই সকলে সকলের খবর রাখছে। সবাই এক সঙ্গে বাঁচার চেষ্টা করছে। সবাই পরস্পরের সমস্যার কথা শুনছে। আর এই সবই হচ্ছে করোনা ভাইরাসের জন্য। তাই ধন্যবাদ করোনা ভাইরাস।

এই ভিডিও পোস্ট করার পরেই তাঁর উপরে চটে গিয়েছেন নেটিজেনরা। যে ভাইরাসের জন্য রোজ মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে সেই ভাইরাসের প্রশংসায় কী ভাবে বিদ্যা পঞ্চমুখ হতে পারেন সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। অনেকে প্রশ্ন তুলছেন বিদ্যার কোনও প্রিয়জন যদি করোনায় আক্রান্ত হতেন তা হলেও কি তিনি একই কথা বলতেন।

প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৪২২৯৮৯। মৃত্যু হয়েছে ১৮৯০০ দজনের। ভারতে এই মুহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০৬ জন। মৃ্ত্যু হয়েছে ১০ জনের। বাংলায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০ এবং মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.