সংগৃহীত

কলকাতা: ডুরান্ডে গ্রুপ লিগের তিন ম্যাচ জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করলেও কলকাতা লিগে প্রথম দু’ম্যাচে জয় নেই। তার উপর শেষ চারের প্রতিপক্ষ রিয়াল কাশ্মীরে দানিশ ফারুখদের গড় উচ্চতা ছ’ফুট। তাই সেমিফাইনালে রিয়াল কাশ্মীরের বিপক্ষে সবচেয়ে বড় মাথাব্যথার কারণ দলের রক্ষণ নিয়ে মঙ্গলবার বিস্তর নাড়াচাড়া করলেন বাগান কোচ কিবু ভিকুনা।

বিদেশি হিসেবে একাদশে তিন বিদেশি চূড়ান্ত না হলেও মাঝমাঠে জোসেবা বেইতিয়াকে পাওয়া যাবে জেনে অনেকটা স্বস্তিতে কোচ। নক-আউটের মত ম্যাচে নির্নায়ক হয়ে উঠতে পারে টাইব্রেকার। সেকথা মাথায় রেখে মঙ্গলবার যুবভারতীর প্র্যাকটিস গ্রাউন্ডে পড়ন্ত বেলাতেও ফুটবলারদের স্পটকিক অনুশীলন করিয়ে গেলেন কিবু। নিজেদের রক্ষণ যেমন মাথাব্যথার কারণ, তেমনই চলতি টুর্নামেন্টে ডেভিড রবার্টসনের দলের গোল না খাওয়ার পরিসংখ্যানও সমান মাথাব্যথা সবুজ-মেরুনের।

ঠিক সেই কারণে বিপক্ষের রক্ষণ ভাঙার বিশেষ পাঠ সালভা চামোরো, জোসেবা বেইতিয়াদের দিয়ে রাখলেন স্প্যানিয়ার্ড কিবু। বিপক্ষ দলে ফুটবলারদের গড় উচ্চতা বেশি হলেও সেট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। তাই সেটপিসের জন্য মঙ্গলের বিকেলে আলাদা সেশন চলল মোহনবাগান অনুশীলনে। সমীহের সুরেই অনুশীলন শেষে কিবু ভিকুনা জানালেন, ‘কাশ্মীর অত্যন্ত শক্তিশালী দল। তবে তৈরি আমরাও।’ একইসঙ্গে দুর্বল রক্ষণ নিয়ে যে অনুশীলনে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছেন, সেটা জানাতেও ভুললেন না স্প্যানিয়ার্ড।

অন্যদিকে ডুরান্ডের প্রথম সেমিফাইনালে বুধবার ইস্টবেঙ্গলের প্রতিপক্ষ গোকুলাম কেরল এফসি। আর বুধের বিকেলে যুবভারতীতে লাল-হলুদ রক্ষণকে একাই টেনে নামিয়ে আনতে পারেন ব্রায়ান লারার দেশের এক স্ট্রাইকার। হ্যাঁ, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোব্যাগোর মার্কাস জোসেফ। যিনি মঙ্গলবার সকালে অনুশীলন শেষে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রেখেছেন আলেজান্দ্রোর রক্ষণকে। গ্রুপ লিগের তিন ম্যাচে দু’টি হ্যাটট্রিক সহ ৮ গোল। জোসেফ জানিয়েছেন যে সেমিফাইনালেও গোল করবেন তিনি। ইস্টবেঙ্গল রক্ষণ সামান্য ভুল করলেই তার ফল ভোগ করবে।

তবে মার্কাসের প্রচ্ছেওন্ন হুমকিতে একেবারেই ডরাচ্ছেন না আলেজান্দ্রো। অভিজিৎ সরকার ছাড়া দলে চোট-আঘাত সমস্যা তেমন নেই। পুরো দল নিয়ে লড়াইয়ে প্রস্তুত লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ। তাঁর দলেও রয়েছে বিদ্যাসাগর সিংয়ের মত গোলমেশিন, কোলাডোর মত বিশ্বস্ত সৈনিক। তাই আলেজান্দ্রো মেনেন্দেস জানাচ্ছেন, মার্কাসকে নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা তৈরি রয়েছে। মাঠে নেমে তা কাজে লাগিয়ে ম্যাচটা জিতেই ফিরব আমরা।