স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: গঙ্গারামপুর পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে বিপ্লব ঘনিষ্ট তুলসীপ্রসাদ চৌধুরীকে অপসারণ করলেন চেয়ারম্যান তৃণমূলের অমলেন্দু সরকার। যদিও পরবর্তী ভাইস চেয়ারম্যান কে হবেন তা এখনও স্পষ্ট হয়নি। সেই পদের জন্য অনেকের নাম উঠে আসলেও শিকে ছিঁড়বে কার তৃণমূল কাউন্সিলরদের মধ্যে তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা।

গত ২৪ জুন দিল্লিতে গিয়ে বিপ্লব মিত্র বিজেপি যোগ দেওয়ার পর দিন তাঁর ভাই প্রশান্ত মিত্রকে দল থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল। এর পরেই পুর আইন মোতাবেক চেয়ারম্যানের ক্ষমতাবলে তৃণমূলের অমলেন্দু সরকারকে সরিয়ে সেখানে তুলসি প্রসাদ চৌধুরীকে বসান তিনি। বিষয়টি কলকাতা হাইকোর্ট অবধি গড়ায়।

হাইকোর্টের বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশিত দিনে তৃণমূল কাউন্সিলরদের ভোটাভুটিতে চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত হন বিপ্লব মিত্রর ভাই প্রশান্ত মিত্র। সে জায়গায় তৃণমুলের অমলেন্দু সরকার সর্বসম্মতিক্রমে গঙ্গারামপুর পুরসভার চেয়ারম্যান মনোনীত হন। পরিশেষে চেয়ারম্যান হিসেবে পুরসভা আইনকে কাজে লাগিয়ে তুলসি প্রসাদ চৌধুরীকে বুধবার ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারন করলেন। এর পরেই প্রশ্ন উঠেছে পরবর্তী ভাইস চেয়ারম্যান কে হচ্ছেন। যে প্রশ্ন খোদ তৃণমূলের অভ্যন্তরেও।

ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে দলের অভ্যন্তরে শুরু হয়েছে গোষ্ঠী কোন্দল। দলীয় সূত্রের খবর ভাইস চেয়ারম্যানের দৌড়ে রয়েছেন রাকেশ পন্ডিত, অশোক বর্ধন, অতনু রায় ও একদা বিপ্লব ঘনিষ্ঠ জয়ন্ত দাস। দলীয় কাউন্সিলরদের মধ্যে থেকে কাকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বেছে নেবেন এবং কি করে গোষ্ঠী কোন্দল থামাবেন তা এখন দেখার বিষয়৷

অপসারনের ব্যাপারে যদিও প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান তুলসি প্রসাদ চৌধুরীর কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এমনকি তাঁর বাড়িতে গেলেও দেখা পাওয়া যায়নি। বিপ্লব মিত্রর ভাই প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্রর অভিযোগ তৃণমূল গায়ের জোরে যা খুশি করতে চাইছে। বিষয়টি এখনও আদালতে বিচারাধীন। সুতরাং যা বলার আদালেই তিনি জানাবেন।

এদিকে চেয়ারম্যান অমলেন্দু সরকার বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন এলাকার উন্নয়নের স্বার্থেই ভাইসচেয়ারম্যান পদ থেকে তুলসি প্রসাদকে সরিয়ে অন্য কাউকে বসা হচ্ছে। যদিও পরবর্তী ভাইস চেয়ারম্যান কে হচ্ছেন তা তিনি এদিন স্পষ্ট করতে পারেননি৷ আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সেই নাম ঘোষনা করা হবে। এমনকি বিষয়টি নিয়ে দলীয় কাউন্সিলরদের মধ্যে কোনও কোন্দল বা বিরোধ নেই বলেও তিনি দাবি করেছেন।