স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: হিতচিন্তক অভিযান শুরু করতে চলেছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। লক্ষ, পশ্চিমবঙ্গে দুই লাখ নতুন সদস্য তৈরি করতে হবে। নভেম্বরের ১৭ তারিখ থেকে পয়লা ডিসেম্বর পর্যন্ত এই অভিযান চলবে বাংলার গ্রামে গ্রামে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের অখিল ভারতীয় সহ সম্পাদক শচীন্দ্রনাথ সিংহ এবং পশ্চিমবঙ্গ মিডিয়া ইন চার্জ সৌরিষ মুখোপাধ্যায় জানান, দক্ষিণ বঙ্গে দেড় লক্ষ এবং উত্তর বঙ্গে ৫০ হাজার সদস্য তৈরি করা হবে।

প্রতি তিন বছর অন্তর বিশ্ব হিন্দু পরিষদের হিতচিন্তক অভিযান হয়। বর্তমানে সারা রাজ্যে প্রায় ৪০ হাজার সদস্য রয়েছে।

বর্তমানে রাজ্যে এন আর সি নিয়ে আলোচনা চলছে। এই আলোচনায় অসম পরিস্থিতিও উঠে এসেছে। পরিষদের সাফ বক্তব্য, বঙ্গের পরিস্থিতিও অসমের থেকে কিছু আলাদা নয়। পশ্চিমবঙ্গে এন আর সি প্রয়োজন। সংগঠনের পক্ষ থেকে ঘরে ঘরে সেই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হবে।

শচীন্দ্র নাথ সিংহ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস নাগরিকত্ব বিল, ২০১৬ সমর্থন করেন নি। নাগরিকত্ব আইন পাশ করতে চেয়েছিলেন প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ওই আইন তৈরি হলে এন আর সি নিয়ে কোনও দ্বিধাদ্বন্দ্ব থাকতো না। কিন্তু এখন তা হচ্ছে।”

তিনি আরও জানান, পশ্চিমবঙ্গে, সংখ্যালঘু তোষণ বেড়েছে। সীমান্ত এলাকায় ঘর ছেড়ে পালাচ্ছে হিন্দুরা। প্রশাসন নির্বিকার।

পরিষদের পরিষ্কার বক্তব্য, “ধর্মের ভিত্তিতে দেশ ভাগ হয়েছে। ১৯৪৭ সালে কলকারার গ্রেটার কলকাতা কিলিং সকলের মনে আছে। মুসলমান রা নিজেদের জন্য হোমল্যান্ড চেয়েছিল। সেই প্রেক্ষিতে আজ বেআইনি মুসলমান অনুপ্রবেশকারী দের ভারতে থাকতে দেওয়া চলবে না।”