কলকাতা : ভোটের বঙ্গে করোনা অতিমারীর কারণে এবছর রামনবমীর অনুষ্ঠান বাতিল ঘোষণা করল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। করোনার দ্বিতীয়ে ঢেউয়ে দেশের অবস্থা টালমাটাল এই কঠিন পরিস্থিতি দাঁড়িয়ে একেবারে শেষ মুহুর্তে বুধবার রামনবমীর শোভযাত্রা বাতিল করল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ।

এই বিষয়ে ভিএইচপি তরফে একটি প্রেস রিলিজে জানানো হয়েছে যে, করোনা অতিমারীর কারণে চলতি বছর সংক্ষিপ্ত করা হচ্ছে রামনবমীর উৎসব। যাবতীয় সুরক্ষা বিধি মেনে বাড়িতেই ভক্তদের রামনবমী পালনের আর্জি জানানো হয়েছে।

এছাড়াও আগামী ২২ এপ্রিল রামনবমী উপলক্ষে মহাভোগের অনুষ্ঠান বাতিল করা হচ্ছে। করোনার কারণে এবছর হচ্ছে না বাইক র‍্যালিও।

এই বিষয়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আহ্বায়ক প্রদ্যুৎ ঘোষ জানিয়েছেন যে, রামনবমীর সঙ্গে মানুষের আবেগ জড়িয়ে রয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিমী জেলার মানুষদের মধ্যে। তবে করোনা কারণে সাধারণ মানুষের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে জেলার সমস্ত ভক্তদের এবছর সাড়ম্বরে রামনবমী পালনের অনুষ্ঠান থেকে বিরত থাকতে বলা হচ্ছে। মহামারী জনিত কারণে এবছর হচ্ছে না ভক্তদের বিশাল বাইল র‍্যালির শোভাযাত্রা।

করোনার কোপে রামনবমী, এবার ভার্চুয়াল আয়োজন

এছাড়াও তিনি সকল ভক্তদের কঠোরভাবে করোনা সংক্রান্ত যাবতীয় সতর্কতা বিধি মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন। অন্যদিকে উদ্বেগ বাড়িয়ে রাজ্যে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছুঁইছুঁই। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৮১৯ জন। যা দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে বাংলায় এখনও সর্বোচ্চ। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। যা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে৷

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, বাংলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৭৮ হাজার ১৭২। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৮০৫ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ৬৫২জন৷ এই মুহূর্তে রাজ্যে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৫৮ হাজার ৩৮৬। বাংলায় সুস্থতার হার ৮৯.৮২ শতাংশ।

রাজ্যের মধ্যে কলকাতায় সবচেয়ে বিপজ্জনক পরিস্থিতি। উল্লেখ্য, সোমবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়, রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৪২৬ জন। আর শুধু কলকাতায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ২১১ জন। মঙ্গলবার কলকাতায় এই মুহূর্তে মোট অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ১৫ হাজার ৭৯২। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় মোট কোভিড কেস ২২৩৪। সুস্থ হয়ে বাড়ি গিয়েছেন ১২০৯ জন। মোট মৃত্যু ৩,২৩১ জন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মৃত্যু ১৩ জনের। শহরে মোট সক্রিয় কোভিড রোগী ১৫,৭৯২, গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ১০১২ জন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.