গোয়া: ক্রমশ এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় কিয়ার। ধীরে ধীরে সাইক্লোন থেকে সুপার সাইক্লোন হয়ে উঠেছে সেই ঝড়। গত কয়েকদিন ধরেই শক্তি বাড়াচ্ছে সেই ঝড়।
গোয়ার আবহাওয়া দফতরের আধিকারিক রাহুল এম জানিয়েছেন, ‘অত্যন্ত ভয়ঙ্কর আকারের ঝড় কিয়ার আরও ঘনীভূত হয়ে সুপার সাইক্লোনে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে এটি গোয়া থেকে ৬৫০ কিলোমিথার দূরে আরব সাগরের উপর অবস্থান করছে।’

এর ঝড়ের জেরে আগামী ৫ দিন প্রবল বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টা মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। মৌসম ভবনের তরফে মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক এবং গোয়ার মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে যাওয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এই বিষয়ে সতর্ক রয়েছে উপকূলবর্তী কোস্ট গার্ডও।

তীব্র থেকে অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলেও পরে অবশ্য শক্তি হারিয়ে উত্তর-পশ্চিমে ওমানের দিকে চলে যাবে কিয়ার৷ তখন এর গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ১৪ কিলোমিটার৷ তবে ভারতে থাকাকালীন এই ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটারের কাছাকাছি৷ এর প্রভাব পড়বে মহারাষ্ট্র, গোয়া এবং কর্ণাটকে। যার ফলে গুজরাতেও ভারী থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই লাল সতর্কতা জারি করেছে কর্ণাটক প্রশাসন। গুজরাত সরকারও বিপর্যয় মোকাবিলায় প্রস্তুত বলে জানিয়েছে৷ গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত জানিয়েছেন, বিপর্যয় মোকাবিলা তারা প্রস্তুত রয়েছে৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।