চেন্নাই:  বিজেপিতে যোগ দিলেন চন্দনদস্যু বীরাপ্পনের মেয়ে বিদ্যা রানি। একটা সময় কর্ণাটক,তামিলনাড়ু, কেরলের ত্রাস ছিল চন্দনদস্যু ছিলেন বীরপ্পন। তাঁর নাম শুনলেই একঘাটে জল খেত বাঘে-গরুতে। যদিও সেই সব আজ অতীত। তামিলনাড়ুর কৃষ্ণগিরি জেলায় এক অনুষ্ঠানে বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মুরলীধর রাও এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পন রাধাকৃষ্ণণের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন বিদ্যা।

সাধারণ মানুষের জন্যে কাজ করার উদ্দেশ্যেই তাঁর বিজেপিতে যোগদান বলে জানিয়েছেন তিনি। বিদ্যার হাতেই বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দিয়েছেন বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মুরলীধর রাও এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

পেশায় আইনজীবী বিদ্যা। বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর বিদ্যা জানিয়েছেন, ‘আমার বাবা জনগণের সেবাই করতে চাইতেন। তবে তিনি ভুল পথ বেছে নিয়েছিলেন। আমি জনগণ ও দেশের সেবা করার জন্যই বিজেপিতে যোগ দিয়েছি। আমি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে গরিব মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গরিব মানুষের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প চালু করেছেন। আমি সেই প্রকল্পগুলির সুবিধা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে চাই।’ শুধু তাই নয়, এই সমস্ত প্রকল্পের কথা অনেকেই জানেন না। সেগুলি সাধারণ মানুষের কাছে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন বিদ্যা।

বীরাপ্পনের বড় মেয়ে বিদ্যা। তিনি এর আগে বিয়ে করতে গিয়ে সমস্যায় পড়েছিলেন। তাঁর পছন্দের পাত্রকে বিয়ে করা নিয়ে আপত্তি জানান মা মুথুলক্ষ্মী। শেষপর্যন্ত তামিলনাড়ু হাইকোর্টের হস্তক্ষেপে বিয়ের অনুমতি পান বিদ্যা।