জয়পুর: অবশেষে রাজস্থানের জয়গড় বন্দরে পদ্মাবতীর শ্যুটিং থামাতে হল সঞ্জয় লীলা বনসালীকে। পদ্মাবতীর জীবন নিয়ে ভুল তথ্য দেখচ্ছেন বনসালী এই অভিযোগে কার্নি সেনার সদস্য রা শ্যুটিং চলাকালীন পরিচালকের উপর এসে চড়াও হয় ও মারধর করে। ছবিতে যাতে পদ্মাবতী ও আলাউদ্দিন খিলজইর মধ্যে কোনও অন্তরঙ্গ দৃশ্য না থাকে সেই বিষয়েও সতর্ক করে কার্নি সেনার সদস্যরা।
এরপরই শ্যুটিং বন্ধ করতে বাধ্য হন পরিচালক। সূত্রের খবর অনুযায়ী ছবিতে পদ্মাবতী ও আলাউদ্দিন খিলজির মধ্যে কোনও অন্তরঙ্গ দৃশ্য নেই। বনসালী এর আগেও রাজস্থানে ছবির শ্যুটিং করেছেন, কিন্তু এর আগে কখনও এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়নি। যেটা হয়েছে তা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক এবং তাই শ্যুটিং থামাতে বাধ্য হয়েছেন বলে পদ্মাবতী টিম থেকে জানিয়েছে।
ছবিতে ইতিহাসে অনেক ভুল রয়েছে এই অভিযোগে শুক্রবার ছবির সেটে ভাঙচুর চালায় কার্নি সেনার সদস্যরা। কার্নি সেনার প্রতিষ্ঠাতা লোকেন্দ্র সিং কালভি জানান, “আমি অশান্তিকে সমর্থন করি না। কার্নি সেনার সদস্যরা শ্যুটিং এর বিরোধীতা করতে ও সঞ্জয় লীলা বনসালীর সঙ্গে কথা বলতেই গিয়েছিল। কিন্তু উনি দেখা করতে রাজি হননি এবং ওনার নিরাপত্তা রক্ষীরা সেদিন শূন্যে তিনবার গুলি চালায় যার ফলে প্ররোচিত হয় কার্নি সেনা”।
তিনি জানিয়েছেন যে ৬ মাস আগে ছবির শ্যুটিং শুরু হওয়ার আগেই কার্নি সেনা পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। আলাউদ্দিন খিলজির চরিত্রে দেখা যাবে রনভীর সি কে। রনভীর একটি ইন্টারভিউতে বলেছিলেন যে ছবিতে আলাউদ্দিন খিলজির একটি স্বপ্নদৃশ্য দেখানো হয়েছে। এরপরেই কার্নি সেনার সদস্যরা যোগাযোগ করেন পরিচালকের সঙ্গে।
এই ঘটনা প্রতিক্রিয়া স্বরূপ বনসালী এখনও মুখ না খুললেও দীপিকা পাডুকোন, রনভীর সিং ও শাহীদ কাপুর এই ঘটনার নিন্দা করেছেন।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।