নয়াদিল্লি: গোটা দেশের মধ্যে পরিচ্ছন্নতম মন্দিরের তকমা পেল বৈষ্ণোদেবী৷ জলশক্তি মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে৷ সেই তালিকায় শীর্ষ স্থান পেয়েছে বৈষ্ণোদেবী৷ এক বিবৃতি প্রকাশ করে বলা হয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের শ্রী মাতা বৈষ্ণোদেবী মন্দির বেস্ট স্বচ্ছ আইকনিক প্লেস৷

সার্বিক ভাবেই এই মন্দির শীর্ষ স্থান লাভ করেছে৷ এর পরিবেশ, পরিচ্ছন্নতা, শৃংখলা-সবকিছুর মাপকাঠিতেই বৈষ্ণোদেবীকে শীর্ষে রেখেছে তালিকাটি৷ বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে মন্দিরের নিকাশি ব্যবস্থা৷ বিগত কয়েক বছর ধরেই শ্রাইন বোর্ড এই নিকাশি ব্যবস্থার মানোন্নয়নে সচেষ্ট ছি,, তাদের পরিশ্রম যে সফল, তা বলাই বাহুল্য৷

শ্রী মাতা বৈষ্ণোদেবী শ্রাইন বোর্ডের মুখপাত্র জানান, মন্দিরের পরিচ্ছন্নতা, দর্শনার্থী ভীড় নিয়ন্ত্রণের কৌশল, নিকাশি ব্যবস্থা, রাস্তা, যোগাযোগ, প্রণামী আদায়ের প্রক্রিয়া, সব কিছু নিয়েই পরীক্ষানিরিক্ষা চালিয়েছে বোর্ড৷ সংস্কার করা হয়েছে দীর্ঘদিন ধরে৷ এই মন্দিরের চারপাশে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন ১৩০০ নিকাশি শ্রমিক৷ তাদের পরিশ্রমের ফলেই এই মন্দির পরিচ্ছন্নতার তালিকায় শীর্ষে এসেছে৷

গত কয়েক বছরে কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকেও বৈষ্ণোদেবী যাওয়ার রাস্তায় একাধিক পরিবর্তন আনা হয়েছে৷ রাস্তা তৈরি বা মেরামতির কাজ চলেছে দীর্ঘদিন ধরেই৷ বৈষ্ণোদেবীকে দীর্ঘদিন ধরেই সাজিয়ে তোলার পরিকল্পনা করেছিল কেন্দ্র৷ সেই মত একাধিক প্রকল্পও নেওয়া হয়৷ চালু করা হয় বন্দে ভারত এক্সপ্রেস৷ দিল্লি থেকে কাটরা রুটে চালু করা হয় এই এক্সপ্রেস ট্রেনটি৷

যে পথ পেরোতে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা সময় লাগত, সেখানে ৮ ঘণ্টা সময় লাগে এখন৷ ফলে দর্শনার্থীদের সংখ্যাও বেড়েছে৷

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা