দেহরাদুন: সতীর্থ মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হতেই থরহরি কম্প দশা গোটা মন্ত্রিসভায়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে মন্ত্রিসভার সব সদস্যদের পাঠানো হল কোয়ারেন্টাইনে। উত্তরাখণ্ডের পর্যটন মন্ত্রী সতপাল মহারাজ মারণ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। তারপরেই উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত-সহ মন্ত্রিসভার সব সদস্যদের সপরিবারের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৯ মে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন উত্তরাখণ্ডের পর্যটন মন্ত্রী সতপাল মহারাজ। শনিবারই তাঁর শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে।

জানা গিয়েছে, মন্ত্রী ছাড়াও তাঁর স্ত্রী সহ পরিবারের ৫ সদস্য ও তাঁর বাড়ির আরও ১৭ কর্মচারীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। সেই কারণেই মন্ত্রী সতপাল মহারাজ যাঁদের সংস্পর্শে এসেছেন তাঁদের প্রত্যেককে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।

প্রথম করোনা ধরা পড়ে মন্ত্রী সতপাল মহারাজের স্ত্রীর শরীরে। তারপর পর্যটন মন্ত্রী-সহ পরিবারের বাকি চার সদস্যের নমুনা রিপোর্টও করোনা পজিটিভ আসে। মন্ত্রীর বাড়ির বাকি ১৭ কর্মচারীর করোনা রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে। করোনা আক্রান্ত মন্ত্রী সতপাল মহারাজ ও তাঁর স্ত্রী অমৃতা রাওয়াত-সহ পরিবারের বাকি সদস্যদের ঋষিকেশের এইমসে ভর্তি রেখে চিকিৎসা করা হচ্ছে।

এদিকে, সতীর্থ মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত হতেই উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে বাকি মন্ত্রীদের মধ্যেও। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী-সহ অন্য মন্ত্রীরাও কোয়ারেন্টাইনে চলে যান।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প