লখনউ: আনন্দ শোভাযাত্রা মুহুর্তে পরিণত হল শোকে৷ বিয়ে করতে যাওয়ার পথেই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল বরের৷ উত্তরপ্রদেশের লখিমপুরের খেরি জেলায় ঘটেছে ঘটনাটি৷

বরযাত্রীরা নিজেদের মধ্যে আনন্দ করতে করতে গুলি চালাচ্ছিলেন, সেই গুলিই আচমকা এসে লাগে বছর পঁচিশেকের সুনীল বর্মার বুকে৷ সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি৷ তাঁকে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, মৃত বলে ঘোষণা করা হয়৷

গোটা ঘটনার ভিডিও করা হচ্ছিল, সেই ভিডিওটিতে দেখা যায় এই গুলি লাগার বিষয়টিও৷ পুলিশ ভিডিওটি খতিয়ে দেখছে৷

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে খবর, খুব জোরে গান চলায় ও প্রচুর মানুষ তাঁকে ঘিরে থাকায়, কে গুলি চালিয়েছে তা বোঝা সম্ভব হচ্ছে না৷ তবে বন্দুকের গুলির আওয়াজও শুনতে পাননি কেউ৷ গোটা ঘটনাই আচমকা হওয়ায় উপস্থিত সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন৷

এমনকি সুনীল মাটিতে পড়ে যাওয়ার পরেও, কেউ বুঝতে পারেননি যে ঠিক কি হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই ভারতীয় দন্ডবিধির ৩০২ ধারায় মামলা করেছে পুলিশ৷ সুনীল বর্মার বাবা রাধেশ্যাম বর্মা একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন৷

তবে প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে বরযাত্রীর মধ্যে থাকা চন্দ্র বলে জনৈক ব্যক্তির হাতের বন্দুক থেকেই ঘাতক গুলি বেরিয়েছিল৷ তবে সে উদ্দ্যেশ্যপ্রণোদিত ভাবে গুলি চালিয়েছিল নাকি অসতর্ক থাকা অবস্থায় গুলি চলে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷