লখনউ: ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে দেশবিরোধী কাজের জন্য উত্তরপ্রদেশ থেকে পাকড়াও ১১ সন্দেহভাজন৷ মঙ্গলবার ও বুধবার উত্তরপ্রদেশের একাধিক এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে এই এগারোজনকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের দুর্নীতি দমন শাখা৷ জানা গিয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরে সেনা অভিযানের সময়ে সেনার ফোনে আঁড়ি পাতার কাজ করতে এরা৷ তারপরে সেখান থেকে বিভিন্ন তথ্য পাকিস্তান, নেপাল, সৌদি আরব ও বাংলাদেশে পাচার করত এই দলটি৷

দিল্লির মেহরাউলি এলাকা থেকে এই চক্রের মাথাকে গ্রেফতার করেছে সন্ত্রাস দমন শাখা৷ ধৃতের নাম গুলশান সেন, বয়স ত্রিশ৷ এই দলটির বিষয়ে উত্তরপ্রদেশ সন্ত্রাস দমন শাখার কাছে প্রথম খবর পৌঁছায় জম্মু-কাশ্মীর মিলিটারি ইন্টালিজেন্স ইউনিট থেকে৷ সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই সেনা তাদের নিজস্ব টেলিকমিউনিকেশন ব্যবস্থায় অন্য ফোনের উপস্থিতি লক্ষ্য করছিলেন সেনাকর্মীরা৷ পরে সেই বিষয়ে উত্তরপ্রদেশ সন্ত্রাস দমন শাখার সাহায্য নেয় সেনা৷

পরে উত্তরপ্রদেশ সন্ত্রাস দমন শাখা যোগাযোগ করে টেলিকম এনফোর্সমেন্ট রিসোর্স অ্যান্ড মনিটারিং সেলের সঙ্গে৷ সেখান থেকেই তথ্য পাচারকারীদের চিহ্নিত করতে পারে উত্তরপ্রদেশ এটিএস৷ তল্লাশি চালাতে উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে যায় সন্ত্রাস দমন শাখার পাঁচটি দল৷ বাজেয়াপ্ত হয়েছে ১০টি মোবাইল, ১৬টি সিম বক্স ও বিভিন্ন কোম্পানির ১৪০টি প্রিপেড সিমকার্ড৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ