রায়গঞ্জ:  নতুন করে ফের উত্তেজনা। শান্তিপূর্ণ মিছিলে বোমার মারার অভিযোগ। প্রবল বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত পাঁচজন গুরুতর জখম হয়েছে। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুরে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ঘটনার পরেই জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ করে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে চলে এই বিক্ষোভ-অবরোধ। দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে চলে এই আন্দোলন। যদিও পুলিশি আশ্বাসে অবশেষ ওঠে অবরোধ।

জানা গিয়েছে, উত্তর দিনাজপুরে পশ্চিমবঙ্গ নাশি শেখ উন্নয়ন সমিতির সিএএ বিরোধী প্রতিবাদ মিছিল ছিল। মিছিল করে জেলাশাসকের কার্যালয়ে ডেপুটশেন জমা দেওয়ার কথা ছিল। সেই মতো শান্তিপূর্ণ মিছিল গেলেও, ফেরার সময়ে উত্তেজনা তৈরি হয়। হঠাত করেই মিছিল লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করা হয় বলে অভিযোগ। এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে ফেরার সময় কলেজ পাড়ার কাছে ওই বোমা নিক্ষেপ করা হয়। যদিও কে বা কারা এই বোমা নিক্ষেপ করেছে তা স্পষ্ট নয় এখনও পর্যন্ত। তবে অশান্তি তৈরি করতেই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের।

জানা গিয়েছে, আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতাল সূত্রে খবর, আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে গোটা রাজ্যে প্রতিবাদের নামে তাণ্ডব চালিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। যার ফলে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে অশান্তি ছড়িয়ে পড়ে। এই অবস্থায় গোটা রাজ্যেই কার্যত বন্ধ ইন্টারনেট। এই অবস্থায় কিছুটা হলেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। সেই অর্থে কোথাও কোনও অশান্তির খবর আসেনি। কিন্তু এদিনের এই ঘটনায় নতুন করে অশান্তির কালো মেঘ দেখছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা। যদিও ঘটনার পরে বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে ঘটনাস্থলে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।