• ২) শিরা উপশিরায় প্লাক জমতে বাঁধা দেয়। ফলে রক্ষা করে শিরা উপশিরায় মেদ জমার মারাত্মক রোগ অথেরোস্ক্লেরোসিসের হাত থেকে।
  • ১) হৃদপিণ্ডের সুস্থতায় কাজ করে এবং শরীরে কোলেস্টেরল কমায়। এতে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমে।
  • অনেকেই রসুন খেতে চান না৷ কারণ তাঁরা মনে করেন, খেলেই মুখ দিকে বিকট গন্ধ বের হয়৷ আর সেই গন্ধের চোটেই অফিস থেকে সামাজিক অনুষ্ঠান যেখানেই যাওয়া হোক না কেন অস্বস্তিতে পড়তে হবে৷ কিন্তু জেনে রাখা উচিত রসুনের অনেক গুণ৷ আর দু-কোয়া কাঁচা রসুন খেয়ে অনেক রোগ থেকেই রক্ষা পেতে পারেন৷
    এবার এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক রসুন খাওয়ার উপকারিতা
  • ৩) উচ্চ রক্ত চাপের সমস্যা দূর হয়।
  •  ৪) হাতে পায়ে জয়েন্টের ব্যাথা ও গেঁটে বাতের সমস্যা স্বস্তি দেয়।
  • ৫) ফ্লু এবং শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।
  • ৬) যক্ষ্মা রোগের হাত থেকে রক্ষা করে।
  • ৭) যৌনমিলনের অসাবধানতা বশত রোগ ট্রিকোমোনিয়াসিসের হাত থেকে রক্ষা করে।
  • ৮) হজমশক্তি বাড়াতে ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।
  • ৯) কোলন ও গলব্লাডার ক্যান্সার থেকে মুক্ত রাখে।
  • ১০) স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।
  • ১১) রেক্টাল এবং প্রোস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।
  • ১২) ক্ষুধামন্দা ভাব দূর করে।
  • ১৩) দেহের অভ্যন্তরীণ ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং কৃমি ধ্বংস করতে পারে।
  • ১৪) চোখে ছানি পড়ার হাত থেকে রক্ষা করে।
  • ১৫) ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।
  • ১৬) দাঁতের ব্যথা সারাতে সহায়তা করে।
  • ১৭) মুখে ব্রণ সমস্যা দূর করে।
  • ১৮) দীর্ঘমেয়াদী হুপিং কাশি ও ব্রঙ্কাইটিসের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

সতর্কতা : তবে রসুন খেলেও সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত৷ দিনে ২ কোয়ার বেশি কাঁচা রসুন খাওয়া উচিত হবে না। রান্নায় রসুন ব্যবহার হলেও দিনে ২ কোয়ার বেশি রসুন খাবেন না। দেখে নিন রসুনে কোনও রকম অ্যালার্জি কিংবা অন্য কোনও কারণে রসুন খাওয়া বন্ধ থাকলে তাদের রসুন খাওয়াই উচিত হবে না ৷ তাছাড়া মনে রাখবেন অতিরিক্ত রসুন খেলে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ, বমিভাব হতে পারে।