ইসলামাবাদ: তালিবানদের মারতে একসময় পাকিস্তানের হাতে অস্ত্র দিয়েছিল আমেরিকা। আর সেই অস্ত্রই তারা ব্যবহার করছে ভারতের বিরুদ্ধে। এমনটাই অভিযোগ তুলেছে নয়াদিল্লি। ওয়াশিংটনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে সেই প্রমাণও। দেখা গিয়েছে, পাকিস্তান LoC-তে যেসব অস্ত্র মোতায়েন করে রেখেছে, তার মধ্যে রয়েছে আমেরিকার TOW-2 অ্যান্টি-ট্যাংক মিসাইল থেকে শুরু করে ১২০ এমএম মর্টার।

চলতি বছরে অর্থাৎ এই মাসখানেকেই সীমান্তের সংঘর্ষে ১০ পাকিস্তানি ও ৯ ভারতীয়ের মৃত্যু হয়েছে। জানা গিয়েছে পাকিস্তানের হাতে রয়েছে আমেরিকার TOW-2 অ্যান্টি-ট্যাংক মিসাইল আর ১২০ এমএম মর্টার। এগুলি দিয়েই মূলত রাজৌরি ও পুঞ্চ সেক্টরের সেনা ঘাঁটিগুলিতে টার্গেট করা হচ্ছে।

এদিকে, পীর পিঞ্জলে মর্টার ব্যবহার করে জঙ্গিদের ভারতে ঢোকানোর ব্যবস্থা করে দিচ্ছে পাক সেনা। গত রবিবারই পাক মিসাইল আর মর্টারের আঘাতে শহিদ হন ভারতীয় সেনার এক ক্যাপ্টেন সহ চার জওয়ান। পাকিস্তানের হাতে থাকা মর্টারের রেঞ্জ হল সাত কিলোমিটার। আর ৮২ এমএম মর্টারের রেঞ্জ সাড়ে চার কিলোমিটার।

কিছুদিন আগে গোয়েন্দা রিপোর্টে প্রকাশ পায়, সংঘর্ষ বিরতি চুক্তির আড়ালে জঙ্গিদের ভারতে অনুপ্রবেশের ছক কষেছে পাক সেনা ও লস্কর জঙ্গি সংগঠন৷ সেই জন্য সীমান্তের ওপারে এই জঙ্গিরা ভারতে অনুপ্রবেশ করার জন্য ওত পেতে বসে আছে৷ গোয়েন্দাদের কাছ থেকে রিপোর্ট পাওয়ার পরই কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে৷ বলা হয়েছে, ভারতে অনুপ্রবেশ করতে তৈরি ৪৫ জন লস্কর জঙ্গি৷

পাকিস্তানের এই অস্ত্রের অপব্যবহারের বিষয়টি ইতিমধ্যেই আমেরিকাকে জানিয়েছে পাকিস্তান। ইসলামাবাদকে বিশ্বের দরবারে কোনঠাসা করে দিতে আরও একধাপ এগোল ভারত।