নয়াদিল্লি: করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা দেশ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার রাত পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। অন্যদিকে ক্রমশ মৃতের সংখ্যাও বাড়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতে আটকে রয়েছেন দুই হাজারেরও বেশি মার্কিন নাগরিক। দেশজুড়ে চলা লকডাউনের মাঝে এবার তাদের উদ্ধারে সচেষ্ট হল ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। ভারতে আটকে পড়া নাগরিকদের এয়ারলিফট করে উদ্ধার করতে চায় আমেরিকা।

আর সেই কারণে মার্কিন হারকিউলিস একটি যুদ্ধবিমান তাঁরা পাঠাতে চায় বলে জানা গিয়েছে। শনিবার রাত পর্যন্ত ভারতে কারণ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০০০। স্বাস্থ্যমন্ত্রক এই তথ্য জানালেও বেসরকারি মতে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরো বেশি। দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি করোনা। আক্রান্তের হদিস মিলেছে শনিবার রাত পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে ১৮৬ জনের শরীরে কারণ আর সংক্রমণ ধরা পড়েছে। সংক্রমিত হওয়ার নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কেরালা। শনিবার রাত পর্যন্ত কেরালায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮২।

দেশে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় চলছে লকডাউন। এদিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে রয়েছেন মার্কিন নাগরিক। সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, এদেশে এখনও পর্যন্ত আটকে রয়েছেন দুই হাজারেরও বেশি মার্কিন নাগরিক। আর সেই সমস্ত আটকে পড়া নাগরিকদের উদ্ধারে উদ্যোগী হল ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। এয়ারলিফট করে তাদের ভারত থেকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হোয়াইট হাউস।

আমেরিকার প্রিন্সিপাল ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ইয়ান ব্রাউনলী জানিয়েছেন, দিল্লি ও তার আশেপাশে এই মুহূর্তে প্রায় দেড় হাজার মার্কিন নাগরিক আটকে রয়েছেন। ৬০০ থেকে ৭০০ আমেরিকান আটকে রয়েছেন মুম্বই তার আশপাশে। ভারতের লকডাউন চলায় সব রকম পরিবহন ব্যবস্থা বন্ধ রাখা হয়েছে।

রেল, সড়ক,আকাশপথ বন্ধ রয়েছে। ভারতে আটকে পড়া মার্কিন নাগরিকদের জন্য উদ্বিগ্ন ট্রাম্প প্রশাসন। তাই তাদের সে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে এয়ারলিফট করতে চায় আমেরিকা। তবে এই ব্যাপারে ভারত সরকারের তরফে এখনো সবুজ সংকেত মেলেনি।