নয়াদিল্লি: চিনের সঙ্গে ঠান্ডা লড়াইয়ের মাঝেই ভারত সফরে আসছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও। আগামী সপ্তাহেই দেশে আসছেন তিনি। ২৬ ও ২৭শে অক্টোবর নয়াদিল্লিতে দুই দেশের মধ্যেই পারস্পরিক চুক্তি সম্পর্কিত একাধিক বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বৈঠকে হতে চলেছে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ মন্ত্রক ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রক স্তরে। বেসিক এক্সচেঞ্জ অ্যান্ড কোঅপারেশন এগ্রিমেন্টের আওতায় এই চুক্তি হবে বলে সূত্রের খবর।

ভারত সফরের পরে মাইক পম্পেওর শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপে যাওয়ার কথা রয়েছে। ২৮শে অক্টোবর শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে ক্যাবিনেট প্রতিনিধি ও মন্ত্রী কেহেলিয়া রামবাকওয়েলার সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। ভারতেরর সঙ্গে এই মুহুর্তে চিনের সম্পর্কের টানাপোড়েনের মাঝে আমেরিকার সঙ্গে ভারতের বৈঠক কূটনৈতিক দিক থেকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একাধিকবার সীমান্ত সমস্যা প্রসঙ্গে ভারতের হয়ে সুর চড়িয়েছে। চিনের প্রকাশ্যে বিরোধিতাও করতে দেখা গিয়েছে ওয়াশিংটনকে। এর আগে, পম্পেও বলেছিলেন গোটা বিশ্বে করোনা ছড়ানোর জন্য চিন দায়ী। তিনি সাম্প্রতিক লাদাখ সীমান্তে ভারত চিন সংঘর্ষের প্রসঙ্গও তোলেন। সে কথা বলতে গিয়ে পম্পেও মন্তব্য করেন, ওই অঞ্চলে চিনের নির্লজ্জ আগ্রাসনে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে।

ভারত ,জাপান ,আমেরিকা এবং অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে গঠিত কোয়াড গঠিত হয়েছে। জাপানে এই প্রেক্ষিতে দুদিনের বৈঠক হয় এই চার দেশের। এই বৈঠকের মূল আলোচ্য বিষয় হল দক্ষিণ চিন সাগরে চিনের আগ্রাসন। ভারতের হয়ে ওই বৈঠকে যোগ দেন বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। সেখানে তিনি ভারতের বক্তব্য তুলে ধরেন।

সংবাদ সংস্থা এএনআই জানাচ্ছে মাইক পম্পেওর সঙ্গে থাকবেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক এস্পার। এঁদের দুজনের সঙ্গে বৈঠক করবেন ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

উল্লেখ্য রবিবার থেকে মাইক পম্পেওর পূর্ব নির্ধারিত এশিয়া সফর শুরু হয়েছে। এই সফরে পম্পেও এশিয়ায় অবস্থিত মার্কিন মিত্র দেশগুলির কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তার প্রতিশ্রুতি দেন বলে জানা গিয়েছে।

এই সফরে তিনি যান জাপান, মঙ্গোলিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ায়। ওয়াশিংটন ফেরার আগে ক্রোয়েশিয়ায় সাংবাদিকদের পম্পেও জানান, তাঁর স্ত্রী সুসান ও তাঁর করোনা পরীক্ষা হলেও, ফলাফল নেগেটিভ এসেছে।

তাছাড়া তিনি আরও জানিয়েছেন, ১৫ সেপ্টেম্বরের পর তার সঙ্গে ট্রাম্পের দেখা হয়নি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং তার স্ত্রীর করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসা সত্ত্বেও পম্পেও সফর নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। তারই জবাবে এই বক্তব্য রাখেন মার্কিন বিদেশসচিব।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।