ওয়াশিংটন: আমেরিকার নিষেধকে তোয়াক্কা না করে রাশিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করল ভারত৷ ৫ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে রাশিয়ার প্রযুক্তিতে নির্মিত পাঁচটি অত্যাধুনিক এস-৪০০ মিসাইল কিনবে ভারত৷ ঐতিহাসিক এই চুক্তির পর পরই প্রতিক্রিয়া এল আমেরিকা থেকে৷ অনেকের আশঙ্কা ছিল এবার হয়তো মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হতে পারে ভারতকে৷ তবে যা প্রতিক্রিয়া এসেছে তাতে মার্কিন ঝাঁঝ বেশ কম৷

রাশিয়াকে শাস্তি দিতে গত বছর অগস্টে একটি আইন পাশ হয় মার্কিন মুলুকে৷ কাউন্টারিং আমেরিকা’স অ্যাডভাইজারি থ্রু স্যাংশনস অ্যাক্ট বা কাটসা আইনে বলা হয়েছে, তৃতীয় কোনও দেশ রাশিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা লেনদেন করলে তাকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হবে৷

এর আগে চিন রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ মিসাইল কেনায় আমেরিকার রোষের শিকার হয়৷ ভারতের ক্ষেত্রেও সেইরকমই আশঙ্কা করা হয়েছিল৷ কিন্তু সব আশঙ্কাকে উড়িয়ে আমেরিকা জানিয়েছে, মার্কিন সহযোগী দেশের প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়নে বাধা হয়ে দাঁড়ানোর উদ্দেশে কাটসা আইন জারি করা হয়নি৷ বরং রাশিয়াকে শায়েস্তা করতে এই আইন চালু করা হয়েছে৷ রুশ প্রতিরক্ষাক্ষেত্রে অর্থের যোগান বন্ধ করতে এই আইন৷ জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসনের এক মুখপাত্র৷

শুক্রবার রাশিয়ার সঙ্গে ঐতিহাসিক প্রতিরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষর করে ভারত৷ আমেরিকার রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে শুক্রবার হায়দরাবাদ হাউসে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হল এই চুক্তি৷ ৫ বিলিয়ন ডলারের এই চুক্তিতে রাশিয়া ভারতকে পাঁচটি অত্যাধুনিক এস-৪০০ ট্রায়াম্ফ মিসাইল দেবে৷ প্রতিরক্ষা ছাড়া আরও অনেক ক্ষেত্রে স্বাক্ষরিত হয়েছে নানা চুক্তি৷

দুই দেশের চুক্তির পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘‘কৌশলগত চুক্তির ক্ষেত্রে নতুন চ্যাপ্টারের সূচনা হল৷ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে মস্কোকে সবসময় প্রাধান্য দিয়ে এসেছে নয়াদিল্লি৷ ভারতের উন্নয়নে সবসময় পাশে থেকেছে রাশিয়া৷’’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।