নয়াদিল্লি:  হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন। সস্ত্রীক ভারতে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের সফরসূচি অনুযায়ী আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি গুজরাত বিমান বন্দর ছোঁবে মার্কিন প্রেসিডেন্টের এয়ারফোর্স ওয়ান। সেখান থেকে সরাসরি নিজের বিশেষ গাড়িতে মোতেরাতে সর্দার প্যাটেল স্টেডিয়ামে যাবেন তিনি।

ইতিমধ্যে মার্কিন বায়ুসেনার বিশেষ বিমানে ভারতে চলে এসেছে ট্রাম্পের বিশেষ এই গাড়ি। আর যা কিনা এখন চর্চার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে। একাধারে মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই গাড়ি হাইটেক আবার অন্যধারে অবশ্যই বিলাসি। ট্রাম্পের এই গাড়ি ‘The Beast’ নামেও পরিচত।

একনজরে জেনে নেওয়া যাক নবতম এই Limousine মডেল সম্পর্কে সব তথ্য: হাইটেক এবং বিলাসবহুল এই গাড়িটি তৈরি করেছে ক্যাডিল্যাক সংস্থা। ক্যাটেগরি: Armoured Limousine। ২০১৮ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্টের একাধারে নিরাপত্তার কথা ভেবে এবং অন্য ধারে বিলাসিতার কথা ভেবে এই গাড়ি নিয়ে আসা হয়। এর আগে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার অফিসিয়াল বাহন ছিল ‘ক্যাডিল্যাক ওয়ান’।

প্রসঙ্গত, ১৯১০ সালে প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্টের অফিসিয়াল গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হার্বার্ট হুভারের আমলে প্রেসিডেন্টের সরকারি গাড়ি হিসেবে প্রথমবার ক্যাডিল্যাক যুক্ত হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের গাড়ির বৈশিষ্ট্য হল গাড়ির জানালায় কাচ এবং পলিকার্বোনেটের পাঁচটি স্তর আছে।

শুধু তাই নয়, মিস্টার প্রেসিডেন্টের প্রতিরক্ষা এবং সুরক্ষার কথাটাও গুরুত্ব দিয়ে ভাবা হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্টের সুরক্ষার সমস্ত বন্দোবস্ত আছে The Beast-এ। এমনকী এই গাড়িতে প্রেসিডেন্টের জন্য সর্বক্ষণ রক্তের ব্যাগও মজুত থাকে। গাড়ির সামনে থেকে টিয়ার গ্যাস ছোঁড়ারও বন্দোবস্ত আছে।

অত্যাধুনিক এই গাড়িটিকে সুরক্ষিত করতে ৫ ইঞ্চি পুরু ধাতব বর্ম থাকে। এই ধাতব বর্ম তৈরির ক্ষেত্রে ইস্পাত, টিটানিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম এবং সেরামিক্স ব্যবহার করা হয়। The Beast-এর সামনের দিকে আছে টিয়ার গ্যাস গ্রেনেড লঞ্চার এবং নাইট ভিসন ক্যামেরা। এতো গেল গাড়ির কথা।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের গাড়ির চালক কিন্তু কোনও অংশে কম যান না। যে কোনও পরিস্থিতির মোকাবিলায় সক্ষম বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত ব্যক্তিকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের চালক পদে নিয়োগ করা হয়। এ ছাড়াও আরও নানা ইউনিক ফিচারস আছে The Beast-এ। যে কারণে মার্কিন প্রেসিডেন্টের অফিসিয়াল গাড়ি হিসেবে এটিকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ