ওয়াশিংটন: মার্কিন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস নিমিৎজ থেকে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া একজন নাবিকের সন্ধানে আরব সাগরের উত্তরাঞ্চলে রবিবার রীতিমতো চেষ্টা চালিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনীর সদস্যরা। তবে এখনও পর্যন্ত ওই সেনার কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে খবর। মার্কিন নৌবাহিনীর মুখপাত্র এমনটাই জানিয়েছে।

মার্কিন পঞ্চম নৌ-বহর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, একজন মার্কিন নাবিক নিখোঁজ হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস নিমিৎজ এবং গাইডেড মিসাইল ক্রুজার ইউএসএস প্রিন্সটন অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। রবিবারেও ওই নাবিক নিখোঁজ হন এবং সন্ধ্যার পর পর্যন্ত অনুসন্ধান কার্যক্রম অব্যাহত ছিল।

তবে নিখোঁজ সেনার নাম পরিচয় এবং তার পদবী প্রকাশ করতে অস্বীকার করেছে মার্কিন নৌবাহিনী। তারা জানিয়েছে, মার্কিন বাহিনীর নীতি অনুসরণ করেই তার নাম পরিচয় গোপন রাখা হচ্ছে। পরে সুবিধাজনক সময়ে সব তথ্য প্রকাশ করা হবে।মার্কিন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজে নিমিৎজে ৫,০০০ থেকে ৮০০০ নাবিক রয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।