ওয়াশিংটন: এবারে এক সাংবাদিকের নামে আল কায়েদার সদস্য তকমা এঁটে দিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। পাকিস্তানি আল জাজিরার ব্যুরো চিফ আহমেদ মুয়াফক জাইদান নামের এক সাংবাদিককে আল কায়েদার সদস্য হিসেবে ঘোষণা করল ওয়াশিংটন। এদিন ওয়াশিংটন সূত্রে একটি নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে যাতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের জঙ্গি সংগঠনের প্রতিনিধিদের নাম রয়েছে। সেখানেই নাম রয়েছে জাইদানের। সূত্রের খবর, জাইদান সিরিয়ার বাসিন্দা। সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করার পর থেকে নানান ঝুঁকিপূর্ণ খবর সংগ্রহণ করেছেন তিনি। এমনকি নিজের কর্মজীবনে সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আল কায়েদা প্রধান ওসামা বিন লাদেনের। বাদ পরেনি আল কায়েদা ও তালিবানের অন্যান্য নেতারাও।

২০১২ সালের জাতীয় নিরাপত্তা এজেন্সি একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন পেশ করে। সেখানেই প্রথম জাইদানের ছবি প্রকাশ করে বলা হয় যে সে আল কায়েদার সঙ্গে যুক্ত। এর পর কেটে গিয়েছে আরও তিন বছর। অনেক তথ্য নিয়ে ফের একবার জাইদিনের নামও প্রকাশ করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।

Comments are closed.