নিউইয়র্ক: ইরানকে মোকাবিলা করার জন্য পারস্য উপসাগরে পাঠানো হয়েছিল মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস আব্রাহাম লিংকন৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেই রণতরী পারস্য উপসাগরে প্রবেশ করেনি। গত মে মাসে এই যুদ্ধ জাহাজটি পারস্য উপসাগরের দিকে রওনা দিয়েছিল ৷ কিন্তু এখন সেই জাহাজটি পারস্য উপসাগর থেকে ৬০০ নটিক্যাল মাইল উত্তরে আরব সাগরের উপর অবস্থান করছে। নিউইয়র্ক টাইমস এমনই খবর জানিয়েছে।

জানা গিয়েছে, ওই জাহাজটিতে ৫,৬০০ নারী ও পুরুষ সেনা রয়েছে এবং জাহাজটি পরমাণু শক্তি চালিত। যুদ্ধজাহাজটির ভিতরে বেশ কয়কটি যুদ্ধবিমানও রয়েছে। এত কিছুর পরেও জাহাজটি মাসের-পর-মাস হরমুজ প্রণালী ও পারস্য উপসাগর এড়িয়ে ওমান উপকূলে অবস্থান করছে। সেনা কর্তারা জানিয়েছেন, তারা এখন পারস্য উপসাগর এড়িয়ে চললেও যদি যুদ্ধ শুরু হয় তাহলে ঠিকই পারস্য উপসাগরে তারা অবস্থান নেবেন।

পারস্য উপসাগরের আকাশে ঢোকায় ইরান মার্কিন ড্রোন ভূপাতিত করেছিল৷ তার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে হামলার নির্দেশ দেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, পরে অবশ্য মার্কিন প্রসিডেন্ট ট্রাম্প হামলার নির্দেশ প্রত্যাহার করলে সেনারা এক রকমের ভয়াবহ বিপদ থেকে মুক্তি পায়। কারণ হামলা কথা জানতে পারায় ওই সেনারা উদ্বিগ্ন হয়েছিলেন৷ নিউ ইয়র্ক টাইমসের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ইরানের পাল্টা হামলার ভয়েই আব্রাহাম লিংকন পারস্য উপসাগরে প্রবেশ করতে চাইছে না।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ