ওয়াশিংটন: বিশ্বের সবথেকে ক্ষমতাশালী দেশ হিসেবেই আমেরিকার নাম উল্লেখ করা হয়েছে বরাবর। আর সেই আমেরিকাই বড়সড় বিপর্যয়ের মুখে। এর আগে জঙ্গি ৯/১১ জঙ্গি হামলায় আমেরিকাকে ভেঙে পড়তে দেখেছিল বিশ্ব। আর এবার তাকেও ছাপিয়ে গিয়েছে মৃতের সংখ্যা।

আর এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার ৫০টি স্টেটেই ‘বিপর্যয়’ ঘোষণা করা হয়েছে। আমেরিকার ইতিহাসে প্রথমবার কোনও প্রেসিডেন্ট একসঙ্গে ৫০টি স্টেটে বিপর্যয় ঘোষণা করেছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেও ট্যুইট করে জানিয়েছে যে এমন ঘটনা আমেরিকার ইতিহাসে প্রথম। একইসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘অদৃশভ শত্রুর বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমরা জিতবই।’

মৃত্যুর বিচারে ইতালিকেও ছাপিয়ে গিয়েছে আমেরিকা। ২০ হাজার পার করে ফেলল মার্কিন মুলুকে মৃত্যুর সংখ্যা। ফলে এখন বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক করোনার মৃত্যু রয়েছে আমেরিকাতেই।

তথ্য অনুসারে মার্কিন মুলুকে নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ১৩৮৮ জনের। যার জেরে আমেরিকায় এক ধাক্কায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২০, ১৩৫। যা কিনা ইতালির থেকো বেশি। ইতালিতে বর্তমানে মৃতের সংখ্যা ১৯,৪৬৮ জন। আক্রান্ত ১ লক্ষ ৫২ হাজার ২৭১ জনের মধ্যে সেরে উঠেছেন ৩২ হাজার ৫৩৪ জন।

জানা গিয়েছে, যে ৪০ প্রবাসী ভারতীয়রা মার্কিন মুলুকে আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের মধ্যে ১৭ জন কেরল, ১০ জন গুজরাত, ৪ জন পঞ্জাব, ২ জন অন্ধ্রপ্রদেশ এবং ১ জন ওড়িশার বাসিন্দা। আক্রান্তদের মধ্যে বেশি অংশই প্রাপ্ত বয়স্ক বলে জানা যাচ্ছে।

শুধুমাত্র নিউইয়র্কেই মৃত্যু হয়েছে ১৫ জন প্রবাসী ভারতীয়ের। এই শহরে বেশ কয়েজন ভারতীয় ট্যাক্সি চালক আক্রান্ত হয়েছে বলে খবর রয়েছে।

জানা যাচ্ছে, নিউ জার্সি শহরে প্রায় ৪০০ ভারতীয় এই মারণ রোগের শিকার হয়েছেন। নিউইয়র্কে সংখ্যাটা ১০০০ জন। সব মিলিয়ে মৃত্যুপুরী মার্কিন মুলুকে করোনায় কাঁপছে ভারতীয়রাও।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প