বার্লিন: এটাই কি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ইঙ্গিত। নতুন করে ইউরোপে সংক্রমণ বাড়তে থাকার ঘটনায় উদ্বেগ তৈরি হচ্ছে। বিবিসি জানাচ্ছে, জার্মানি, স্পেন, ফ্রান্স ও বেলজিয়ামে ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বিভিন্ন দেশে সতর্কতা ও বিধিনিষেধ জারি হয়েছে।

জার্মানিতে ১ হাজার ২০০ জনেরও বেশি মানুষ ফের করোনা আক্রান্ত। এই পরিসংখ্যান গত তিন মাসের মধ্যে সর্বাধিক। জার্মান বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের নতুন করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ওই দেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে, জার্মানিতে ৯ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মৃত। করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ২ লক্ষ ২০ হাজারের বেশি। জার্মানির থেকেও চিন্তিত বেশি স্পেন সরকার। এখানে করোনা সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন,অবস্থা আরও খারাপ হওয়ার আগেই প্রতিরোধ করতে হবে।

স্পেনে মোট ৩ লক্ষ ২৬ হাজারের বেশি জন করোনায় আক্রান্ত। ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসেবে এটি পশ্চিম ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। ফ্রান্সে বুধবার পর্যন্ত নতুন করে ২ হাজারের বেশি করোনা সংক্রমণ পরিসংখ্যান এসেছে। লকডাউন তুলে নেওয়ার পর সর্বাধিক ভাইরাস হামলা হচ্ছে।

করোনার হামলায় ফের সন্ত্রস্ত বেলজিয়াম। রাজধানী শহর ব্রাসেলসে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। বেলজিয়ামে ৭৫ হাজারের বেশি করোনায় আক্রান্ত। ৯ হাজার ৮০০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

হু আগেই জানিয়েছিল, যে কোনও সময়ে করোনা ফের ঘুরে আসতে পারে। তেমনই দেখা যাচ্ছে। এদিকে করোনা প্রতিরোধের জন্য রুশ টিকা স্পুটনিক ভি নিয়েই একাধিক ইউরোপীয় দেশ সন্দিহান। যদিও রাশিয়া সরকার দাবি করেছে, বিশ্বে প্রথম করোনা টিকা এখন বাজারে আসার মুখে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা