নয়াদিল্লি:  এই মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশ জুড়ে কার্যত থমকে রয়েছে একাধিক ক্ষেত্র। ধীরে ধীরে সব কিছু স্বাভাবিক হতে শুরু করলেও আগের মত স্বাচ্ছন্দ্য পাচ্ছেন না অনেকেই। তবে এই সবের মধ্যে ক্রমেই প্রবল হচ্ছে সাইবার আক্রমণ। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন এই পরস্থিতিতে সব থেকে বেশি সক্রিয় হয়ে উঠছে সাইবার অপরাধীরা। কারণ করোনার কারণে ডিজিটাল লেনদেন অনেক বেড়েছে। ভাইরাসের আতঙ্ক নগদে লেনদেনের ব্যবহার থেকে সরে এসেছে মানুষ। আর এই সুযোগে সক্রিয় হয়ে উঠেছে সাইবার ক্রাইম।

আর সেই কারণে সাধারণ মানুষদের একটু সতর্ক থাকার নির্দেশ দিচ্ছেন সাইবার বিশেষজ্ঞরা। যদিও লকডাউনের আগে থেকেই মানুষ ক্রমেই ঝুকেছে অনলাইন পেমেন্টের দিকে। আর সেই কারণে বিগত কয়েক মাসের মধ্যে বেড়েছে এই অনলাইন প্রতারনার হার। আর এই সাইবার অপরাধের মধ্যে একমাত্র উপরের দিকে রয়েছে ইউপিআই পিন প্রতারণা।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন ইউপিআই পিন কিন্তু একমত্র সুরক্ষা বলয় নয়। এটির মাধ্যমে কিন্তু অনেক সাইবার অপরাধীরা প্রতারণা করে চলেছে।

দিল্লির এক সাইবার ক্রাইম বিশেষজ্ঞ পবল দুজ্ঞল জানিয়েছেন, ব্যবহারকারীদের উচিত নিজেদের ইউপিআই পিন সতর্ক ভাবে রাখা। কারণ এটির মাধ্যমে কিন্তু বর্তমানে সাইবার অপরাধীরা মানুষকে প্রতারণা করে চলেছে। কোন গ্রাহক যদি কোন মেসেজ বা ইমেল পান যেখানে নিজেদের ইউপিআই পিন দিতে হবে তাহলে যেন সেই সকল মেসেজ বা ইমেল গ্রাহকেরা এড়িয়ে যান তা জানিয়েছেন ওই বিশেষজ্ঞ।

এছাড়াও জানানো হয়েছে গ্রাহকেরা যেন অচেনা কোন অ্যাপ আর্থিক লেনদেনের জন্য ব্যবহার না করে। নিশ্চিত না হয়ে কোন অ্যাপ ব্যবহার উচিত নয় বলে জানিয়েছেন ওই সাইবার বিশেষজ্ঞ।

এছাড়া তিনি সাধারণ মানুষকে সতর্ক করে জানিয়েছেন গ্রাহকেরা যেন নিজেদের ওটিপি অন্য কারো সঙ্গে শেয়ার না করেন। ব্যাংক কখনই কোন গ্রাহকের থেকে তার ওটিপি চায় না। সুতরাং সেই বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে গ্রাহকদের।

যদি কোন গ্রাহক ফোন কল পান যেখানে তাদের ওটিপি জানাতে বলা হচ্ছে তাহলে যেন সঙ্গে সঙ্গে সেই কল এড়িয়ে যান তা জানানো হয়েছে।তারই সঙ্গে ওই নম্বরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে জানিয়েছেন। এছাড়া ব্যাংকের তরফ থেকে সকল গ্রাহকদের জানানো হয় কিভাবে নিরাপদের সঙ্গে ভুয়ো মেসেজ বা ইমেল থেকে সাবধানে থাকবেন। ওই সাইবার বিশেষজ্ঞ সকলকে জানিয়েছেন তারা যেন ব্যাংকের নির্দেশিকা মেনে চলেন। নিশ্চিট না হয়ে গ্রাহকেরা যেন কোন ভুল পদক্ষেপ না নেন তাও জানানো হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ