স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জেলের জীবন মোটেও সুখকর হয়না। গ্ল্যামারাস জীবন,লাইট ক্যামেরা অ্যাকশনের ঝলকানি সব ভুলে অন্ধকার জীবন সত্যিই কষ্টকর। দীর্ঘ এক বছরেরও বেশি সময় জেলে কাটানোর পর তিনি ফিরেছেন৷ ফেরার মূল্য মাত্র দু টাকা৷ আর্থিক দুর্নীতি কাণ্ডে জেলে যাওয়ার আগে হুঙ্কার দিয়ে বলেছিলেন- বাড়িতে ছেলে ঢুকিয়ে দেব৷ সেসব অতীত৷ তাপস পাল আবারও সিনেমায় স্বমহিমায়৷

পরিচালক দেবাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় তৈরি হয়েছে এই শর্ট ফিল্ম। নাম ‘২ টাকা’। ছবির বিষয়বস্তু আর্থিক দুর্নীতি। ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন অভিনেতা তাপস পাল, তুলিকা বসু, কৃষ্ণকিশোর মুখোপাধ্যায়, নিমাই ঘোষ, তানিয়া গাঙ্গুলি সহ অন্যান্য কলাকুশলীরা। দু-টাকা কে কেন্দ্র করেই এই ছবির গল্প। মধ্যবিত্ত বাঙালি পবিত্র দত্ত, তাঁর জীবনে সুখ নেই বললেই চলে। সারাদিন স্ত্রীর খিটখিটানি সহ্য করতে কারই বা ভালো লাগে।

তাও সব কিছুকে উপেক্ষা করেই দিন কাটে পবিত্রর। সুন্দরী নারী থেকে শুরু করে, পথের ভিখারি দুটো টাকা দিতে তাঁর আপোষ নেই। তবে জীবন কি কারো এক রকম ভাবে কাটে? পবিত্রর জীবনেও আসে ঝড়, ধরা পড়ে আর্থিক দুর্নীতি। কি করবে এবার পবিত্র? তাঁর উত্তর রয়েছে দেবাদিত্যর ‘দু টাকা’-র গল্পে। ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে ছবি।

আর্থিক দুর্নীতির কারণেই জেলে গিয়েছিলেন তাপস পাল। আর এরকমই একই ধরনের গল্পতেই অভিনয় করতে হচ্ছে তাঁকে। কিন্তু খারাপ লাগা নেই, আগেই তাঁর চোখের জলে প্রমাণ করেছিলেন তিনি ভুল করেছেন। লক্ষ লক্ষ মানুষের টাকা মেরে হজম হয়নি তাঁর। তবে ছবির গল্প যাই হোক অন্ধকার জীবন কাটিয়ে আলোর দুনিয়ায় ফিরে বেশ ভালোই লাগছে তাঁর।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।