লখনউ: মদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে চেয়ে সওয়াল করেছিলেন যোগী সরকারের মন্ত্রী৷ জবাব এলো ওই দিন রাতে৷ একদল উন্মত্ত জনতা মন্ত্রীর বাড়ি লক্ষ্য করে ডিম ও টোমেটো ছুঁড়ে মারে৷ অর্থাৎ মানে পরিস্কার৷ রাজ্যের মদের উপর নিষেধাজ্ঞায় আপত্তি রয়েছে তাদের৷

যোগী সরকারের অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী ওম প্রকাশ রাজবীর শুক্রবার একটি জনসভায় গিয়ে মদের উপর নিষেধাজ্ঞার পক্ষে সওয়াল করেন৷ বারাণসীতে ওই জনসভায় তিনি বলেন, ‘‘রাজপুত ও যাদবরাই বেশি মদ্যপান করে৷ তাদের পূর্বপুরুষরাও একই কাজ করেছে৷’’ ওই জনসভা থেকে ওম প্রকাশ বলেন, ‘‘গত ১৫ বছর ধরে বলে আসছি রাজ্যে মদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হোক৷ তবে আমি মনে করি মহিলারা আমার দাবির সঙ্গে একমত হবেন৷ যাদের স্বামী বা ছেলে রোজ রাতে মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরে আসে তাদের কথা ভাবুন৷ কতটা কষ্ট হয় তাদের৷’’

এদিকে জাত তুলে মন্ত্রীর মন্তব্যের সমালোচনা শুরু হয় রাজ্যে৷ বিরোধীরা মন্ত্রীর মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দেন৷ রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব টুইট করে বলেন, জাত পাত নয়, রাজভরের মতো মানুষেরা দূষণ ছড়িয়ে বেড়ায়৷ মন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয় যাদব ও রাজপুতরা৷ এরপর শুক্রবার রাতে মন্ত্রীর লখনউয়ের বাড়িতে হামলা করে একদল সমাজবাদী সমর্থক৷ বাড়ির সামনে ডিম ও টোমোটে ছুড়ে মারা হয়৷ গেটের সামনে থাকা নেমপ্লেটটি খুলে সেটিকে নষ্ট করে দেয় ক্ষিপ্ত সমর্থকরা৷

খবর দেওয়া হয় পুলিশকে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে৷ এখনও অবধি কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি৷ তবে এই প্রথম নয় এর আগেও বিতর্কিত মন্তব্য করে রাজ্যে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী৷ কয়েকমাস আগে একটি অনুষ্ঠানে এসে অনগ্রসর ছাত্র ছাত্রীদের স্কলারশিপ দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে বসেন৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।