লখনউ: উত্তর প্রদেশে ফের সামনে এল ধর্ষণের ঘটনা। জানা গিয়েছে শ্যালকের হাতে ধর্ষণের অভিযোগ করল এক ২৬ বছর বয়সী মহিলা। ঘটনাটি নিয়ে শুরু হয়েছে তদন্ত। বারংবার উত্তর প্রদেশে এই ধরনের ঘটনা প্রশ্ন তুলেছে উত্তর প্রদেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিয়ে। পাশপাশি বিরোধী নেতাদের তরফেও বিষয়টি নিয়ে তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে। তবে পরিবারের মধ্যে এই ধরনের ঘটনা ঘটায় অবাক সকলে।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের বান্দা জেলায়। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে ইতিমধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে পাশপাশি শুরু হয়েছে তদন্ত। রিপোর্ট মারফত জানা গিয়েছে ঘটনাটি বুধবার রাতে ঘটে। ওই সময়ে নির্যাতিতা মহিলা একা তার নিজের ঘরে ছিলেন। পাশপাশি এও জানা গিয়েছে অভিযুক্ত ব্যক্তি নির্যাতিতা মহিলার আড়াই বছর বয়সীকে শিশুকে খুন করার হুমকিও দিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশের তরফে শুরু হয়েছে তদন্ত। শীর্ষ আধিকারিকদের তরফে জানা গিয়েছে অভিযোগের উপর ভিত্তি করে পুলিশের তরফে শুরু হয়েছে তদন্ত। বারংবার এই ধরনের ঘটনার জেরে প্রশ্নের মুখে উত্তর প্রদেশ পুলিশ। তবে শীর্ষ কর্তাদের তরফে জানানো হয়েছে বিস্তারিত তদন্ত শুরু হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।