লখনউ: মীরাটের নিম্নবিত্ত পরিবারের মেয়ে প্রিয়া সিং৷ বাবার আয় প্রতিমাসে ১০, ০০০টাকারও কম৷ এই পরিবারের মেয়ের শুটিং-কে কেরিয়ার বেছে নেওয়াটা বিলাসিতা৷ কিন্তু প্রতিভা কবে দারিদ্র্যের কাছে হার মেনেছে! ধার করা রাইফেল দিয়ে কিস্তিমাত করেছেন প্রিয়া৷ আইএসএসএফ জুনিয়র শুটিং বিশ্বকাপে ভারতের হয়ে অংশগ্রহণ করার ছাড়পত্রও আদায় করেছে৷ কিন্তু বাধ সাধছিল অর্থ৷ শেষ পর্যন্ত গরীব পরিবারের শুটার প্রিয়ার পাশে দাঁড়াল উত্তরপ্রদেশ সরকার৷

জুন মাসে জার্মানি শুলে অনুষ্ঠিত হবে আইএসএসএফ জুনিয়র বিশ্বকাপ শুটিং৷ এই বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারে চতুর্থ স্থানে ছিল প্রিয়া৷ কিন্তু সরকারি নিয়ম অনুসারে কোয়ালিফায়ারে প্রথম তিনজনকেই মূল ইভেন্টে অংশগ্রহণের জন্য সরকারি সাহায্য দেওয়া হয়৷ তাই জার্মানি গিয়ে প্রিয়ার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ অসম্ভব হয়ে পড়েছিল৷ এরপরই সংবাদমাধ্যমে প্রিয়ার খবর উঠে আসে৷ পাশাপাশি প্রিয়ার বাবা উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে প্রিয়াকে সাহায্য করার জন্য আবেদন জানান৷ এরই প্রেক্ষিতে উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষে ৪.৫ লক্ষ টাকা প্রিয়াকে দেওয়া হচ্ছে আইএসএসএফ জুনিয়র বিশ্বকাপে অংশগ্রহনের জন্য৷

আসন্ন আইএসএসএফ বিশ্বকাপের জন্য প্রিয়াকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গেই আমি ৪.৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছি৷ জেলার ম্যাজিস্ট্রেটকে বলে দিয়েছি দ্রুততার সঙ্গে টাকাটা প্রিয়ার কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য৷’