লখনউ: ৮ পুলিশ হত্যার প্রধান অভিযুক্ত বিকাশ দুবের খোঁজে রীতিমতো উঠে পড়ে লেগেছে উত্তর প্রদেশ পুলিশ। সূত্র জানাচ্ছে, অভিযুক্তকে নাকি দেখা গেছে হরিয়ানার ফরিদাবাদের একটি হোটেলে।

মঙ্গলবার ফরিদাবাদের একটি হোটেলে অভিযানের সময় গ্রেফতার হওয়া এক ব্যক্তি পুলিশকে জানিয়েছেন, বিকাশ দুবে হোটেল থেকে পালিয়ে গেছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, পুলিশ একটি সিসিটিভি ফুটেজে এমন একজনকে দেখতে পেয়েছে, যার সঙ্গে ওই অভিযুক্তের সাদৃশ্য রয়েছে।

দিল্লির কাছাকাছি থাকা হরিয়ার দুই শহর ফরিদাবাদ এবং গুরগাঁওতে উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে দিল্লি পুলিশকেও আলার্ট থাকতে বলা হয়েছে।

গত সপ্তাহে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাশি চালাতে গিয়ে অপরাধীদের মুখোমুখি পড়ে প্রাণ হারান ৮ জন উত্তরপ্রদেশ পুলিশ কর্মী। এর মধ্যে এসপি পদমর্যাদার এক অফিসারও রয়েছেন।

বিকাশ দুবে নামে এক ব্যক্তিকে খুঁজতে তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় দুষ্কৃতীদের গুলির সামনে পড়ে পুলিশ বাহিনী। প্রাণ হারান এসপি দেবেন্দ্র মিশ্রসহ আট পুলিশ সদস্য। ডিএসপি দেবেন্দ্র মিশ্র ছাড়াও মহেশ জাদব, এছাড়া একজন সাব ইন্সপেক্টর ও ৫ পুলিশ কনস্টেবল দুষ্কৃতীদের গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া আহত হন ১২ জনের বেশি।

বিকাশ দুবের বিরুদ্ধে সন্তোষ শুক্লা নামে এক ব্যক্তিকে খুনের অভিযোগ রয়েছে ২০০১ সাল থেকে। উল্লেখ্য, এই সন্তোষ শুক্লা বিজেপির রাজনাথ সিংয়ের সরকারের মন্ত্রী ছিলেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।