লখনউ: পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনের হিংসাকে কটাক্ষ করলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফার ভোট গ্রহণের দিনে এই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন তিনি।

রবিবার সকাল থেকে শুরু হয়েছে সপ্তম তথা অন্তিম দফার ভোট গ্রহণ। সমগ্র দেশের ৫৯টি লোকসভা কেন্দ্রে চলেছে ভোট গ্রহণ। এদিন রাজ্যের তিন জেলার নয় কেন্দ্রে চলছে ভোট গ্রহণ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যপাধ্যায়ের ভোটও আজকের দিনেই পড়েছে। তিনি দক্ষিণ কলকাতা কেন্দ্রের ভোটার।

উল্লেখযগ্য বিষয় হচ্ছে, এদিনই পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন এবং সেই নির্বাচনে নানাবিধ হিংসার ঘটনা নিয়ে বাংলাকে কটাক্ষ করেছে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। ভোটের সময়ে নিজের রাজ্যের সঙ্গে বাংলার নির্বাচনের তুলনাও করেছেন যোগী আদিত্যনাথ। উত্তর প্রদেশের নির্বাচনে যে একেবারে হিংসার ঘটনা ঘটেনি এমন নয়, সেই বিষয়টিও মেনে নিয়েছেন যোগী।

এদিন নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন যোগী আদিত্যনাথ। ভোট দেওয়ার পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখী হয়ে তিনি বলেন, “নির্বাচন হচ্ছে গণতন্ত্রের উৎসব। কিন্তু এই নির্বাচনে যা সব হচ্ছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।” এরপরেই তিনি পশ্চিমবঙ্গ এবং উত্তর প্রদেশের তুলনা টেনে বলেন, “উত্তর প্রদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গের ভোটের পরিস্থিতি তুলনা করে দেখুন। গত ছয় দফা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের মতো হিংসার ঘটনা উত্তর প্রদেশের কিন্তু ঘটেনি।”

এদিন সকালের দিকে উত্তর প্রদেশের গোরক্ষপুর লোকসভা কেন্দ্রে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। ওই লোকসভা কেন্দ্রের ২৪৬ নম্বর বুথে তিনি ভোট দিয়েছেন। যোগী আদিত্যনাথ এই গোরক্ষপুর লোকসভা কেন্দ্রের দীর্ঘ দিনের সাংসদ ছিলেন। গত লোকসভা নির্বাচনেও এই কেন্দ্র থেকেই তিনি জিতে সাংসদ হয়েছিলেন। ২০১৭ সালে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে তাঁকে সংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে হয়।