লখনউ: ভোট শেষ, কিন্তু কথার যুদ্ধ শেষ হচ্ছে না৷ একের পর এক আক্রমণ প্রতি আক্রমণে বিজেপি ও তৃণমূলের নেতারা জড়িয়ে পড়ছেন৷ এবার উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়কের নিশানায় বিরোধী দলের নেতা নেত্রীরা৷ রীতিমত বিতর্কিত মন্তব্য করে উত্তেজনার পারদ চড়িয়েছেন তিনি৷

শুক্রবার ভারতীয় জনতা পার্টির বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে রাক্ষসীর সাথে তুলনা করে বিতর্ক উসকেছেন৷
এদিন তিনি বলেন লঙ্কা জয় করতে গিয়ে যেমন বীর হনুমানের পথ আটকেছিল এক ভয়ানক রাক্ষসী, তেমনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পথ রামায়ণে বর্ণিত সেই রাক্ষসীর মত আটকেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এদিন মোদীকে ভগবান রামের সঙ্গে তুলনা করেছেন সুরেন্দ্র সিং৷ শুধু তাই নয় উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে বীর হনুমানের সঙ্গেও তুলনা করেছেন এই বিজেপি বিধায়ক৷ রাম ও হনুমানের এই সফল জুটি দেশকে সঠিক দিশা দেখাবে বলে বিশ্বাস তাঁর৷

আরও পড়ুন : পারিবারিক মূল্যবোধের অভাবেই মৃত্যু শিশুর, আলিগড়ের ঘটনার ব্যাখ্যা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

মোদী ও যোগী সরকারকে আটকানোর ক্ষমতা কারোর নেই বলেও এদিন মন্তব্য করেছেন তিনি৷ রাক্ষসীদের হারিয়ে এই জুটি দেশে রামরাজ্য প্রতিষ্ঠা করবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তিনি৷ তৃণমূল থেকে ১০-২০ জন বিভীষণ বিজেপি এসেছে বাংলায়, তার মধ্যে থেকে আসল একজনকে বেছে নেওয়া হবে, যে মমতার রাজত্ব পশ্চিমবঙ্গে ধ্বংস্ব করবে বলে এদিন মন্তব্য করেছেন সুরেন্দ্র সিং৷

শুক্রবার শুধু মমতা নয়, তাঁর নিশানায় ছিলেন সমাজবাদী পার্টি প্রধান অখিলেশ যাদবও৷ মায়াবতীকেও এদিন কটাক্ষ করেছেন সুরেন্দ্র৷ তিনি বলেন টাকার খেলা ছিল এই মহাগঠবন্ধন৷ সেই টাকার লোভেই জোট ছেড়েছেন মায়াবতী৷ অন্যদিকে সপা প্রধান অখিলেশ যাদবকে কসাই বলে ব্যাখ্যা করেন সুরেন্দ্র সিং৷ বাবুয়া শব্দটিকে কটাক্ষ করে এই বিজেপি বিধায়ক বলেন অখিলেশ মোটেই বাবুয়া নয়৷ নিজের স্বার্থের জন্য সে সব কিছু করতে পারে৷

আরও পড়ুন : আবর্জনা থেকে শিশুর দেহ টেনে বের করল কুকুর, শিউরে উঠছে গোটা দেশ

তবে বিজেপি নেতাদের নিশানার মুখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এই ঘটনা কিছু নতুন নয়৷ বুধবারই জয় শ্রী রাম শ্লোগান ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি সাংসদ অজয় ভাট৷ মমতাকে ষাঁড়ের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেছিলেন তিনি বলেছিলেন কোনও ষাঁড়কে লাল কাপড় দেখালে, সে যেমন ক্ষেপে গিয়ে তেড়ে আসে, ঠিক তেমনই আচরণ করছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জয় শ্রী রাম শুনলেই রেগে যাচ্ছেন তিনি৷ সেই শ্লোগানকে গালাগালি বলছেন৷ অনেকটা পাগল ষাঁড়ের মতই আচরণ করছেন মমতা৷

সম্প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জয় শ্রী রাম লেখা ১০ লক্ষ পোস্টকার্ড পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি৷ তার পালটা তৃণমূলের পক্ষ থেকে জয় হিন্দ, বন্দেমাতরম ও জয় বাংলা লেখা ১০ হাজার পোস্টকার্ড পাঠানো হয়েছে৷