লখনউ: এনআরসি নিয়ে এবার উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়কের তোপের মুখে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এনআরসির বিরোধিতা করে আসলে বাংলাদেশি ‘শয়তান’দের পশ্চিমবঙ্গে জায়গা করে দিচ্ছেন বলে তৃণমূলনেত্রীকে তীব্র আক্রমণ শানালেন বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। একইসঙ্গে তাঁর আরও দাবি, ‘বাংলাদেশি আর পাকিস্তানি মুসলিমদের এদেশে থাকার অনুমতি দেওয়া হলে দেশের প্রতিটি এলাকায় জম্মু-কাশ্মীরের মতো পাথর হাতে বিক্ষোভকারীদের ভিড় বাড়বে’৷ আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘উচিত’ শিক্ষা দেবেন বলে দাবি বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিংয়ের।

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে শুরু থেকেই সরব তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এনআরসি করে বিজেপি বিভাজনের রাজনীতি করছে বলেও অভিয়োগ তৃণমূলনেত্রীর। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লাগাতার কেন্দ্র-বিরোধিতার প্রতিবাদে সরব বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা। তৃণমূলনেত্রীকে উদ্দেশ্য করে একের পর এক তোপ দেগে চলেছে গেরুয়া শিবির। এই তালিকায় এবার নবতম সংযোজন উত্রপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। মমতাকে আক্রমণ করে বিজেপির এই বিধায়ক বলেন, ‘একজন নির্দয় মহিলা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাশ্মীরে পাথর ছোড়ে যারা, তাদের মতো মুসলিম অনুপ্রবেশকারীদের মমতা এদেশে জায়গা করে দিচ্ছেন।’ সপ্তাহ খানেক আগেও সুরেন্দ্র সিং বলেছিলেন,‘মমতা একটা শয়তান। শতশত হিন্দুদের যারা মেরেছে, তাদের উনি আড়াল করছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের মানুষের সঙ্গে নয়, আসলে আছেন বাংলাদেশি শয়তানদের সঙ্গে।’

আগামী বিধানসভা ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতা থেকে মানুষ সরিয়ে দবেনে বলেও দাবি করেছেন বিজেপির ওই বিধায়ক। এই প্রসঙ্গে সুরেন্দ্র সিং বলেন, ‘বাংলাদেশি আর পাকিস্তানি মুসলিমদের এদেশে থাকার অনুমতি দেওয়া হলে দেশের প্রতিটি রাস্তা জম্মু-কাশ্মীরের মতো হয়ে যাবে৷ পাথর হাতে বিক্ষোভকারীদের ভিড় বাড়বে৷ এর ফল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাবেন। এই নির্দয় মহিলাকে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেবে মানুষ।’

সিএএ ও এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় শুরু থেকেই বিজেপির রোষে পড়েছেন তৃণমূলনেত্রী৷ কেন্দ্র বিরোধিতায় সুর চড়ানোয় এরাজ্যেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপি নেতারা। একাধিক সভা-মিছিলে মমতাকে দেশদ্রোহীরও তকমা দিয়েছেন বিজেপি নেতারা।