প্রতীকী ছবি

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: সরকারি হাসপাতালের এক কর্মীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল৷ অভিযোগ, ওই ব্যক্তিকে জোর করে মদ খাইয়ে খুন করা হয়৷ ঘটনাটি ঘটেছে সোনারপুর থানা এলাকার সুভাষগ্রামের নাথপাড়ায়।

মৃতের নাম বাদল দেবনাথ (৫৯)। অভিযোগ, জীবন নাথ নামে এক ব্যক্তি তাঁকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়৷ জীবনের রাস্তার ধারে একটি কাঠের দোকান আছে। অভিযোগ, এই কাঠের দোকানেই জোর করে মদ্যপান করানো হয় বাদলকে।

আরও পড়ুন: পাট চাষীদের জন্য সুখবর আনলেন মোদী

এরপর বাদলবাবুর কোনও খোঁজ ছিল না৷ সোমবার দুপুরের পর জীবন নাথের কাঠের দোকানের পিছন দিকের একটি জলাশয় থেকে উদ্ধার হয় বাদল দেবনাথের দেহ। তাঁর ঘাড়ে, মাথায়, গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে৷ যে জলাশয় থেকে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে সেখানে হাঁটু অবধিও জল নেই।

মৃতের পরিবারের লোকজনের দাবি, এই জলে ডুবে মরা অস্বাভাবিক ব্যাপার৷ এই ঘটনায় অভিযোগের তির জীবন নাথের দিকে৷ সঙ্গে আরও তিনজনের নাম জড়িয়েছে৷ তারা হল শিবু, তপন, কাকা নামে স্থানীয় তিনজন৷

আরও পড়ুন: নিপা ভাইরাস নিয়ে কেরল সরকারের রিপোর্টে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

অভিযুক্তরা সকলেই পলাতক। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য দেহ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।