নয়াদিল্লি:  করোনা আক্রান্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। জানা যাচ্ছে, গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সম্প্রতি করোনার টেস্ট করা হয় ধর্মেন্দ্র প্রধানের। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপরেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে।

সোমবারই করোনা আক্রান্ত হন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁকেও মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেই হাসপাতালেই চিকিৎসা হচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের। ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চিকিৎসায় একটি মেডিক্যাল টিম তৈরি করা হয়েছে। প্রতি মুহূর্তে নজর রাখা হচ্ছে তাঁর উপর।

অন্যদিকে, জানা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পরিবারের সবার করোনা পরীক্ষা করা হবে। এই মুহূর্তে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা হোম আইসোলেশনে রয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, করোনা আক্রান্ত হয়েছেন অমিত শাহ। রবিবারই আসে সেই রিপোর্ট। নিজেই সেকথা জানান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, তাঁর সংস্পর্শে আসা প্রত্যেকে যেন আইসোলেশনে থাকেন।

জানা যাচ্ছে, বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকেও যোগ দেন অমিত শাহ। এদিনের বৈঠকে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীও। সামাজিক দূরত্ব মেনেই হয় মন্ত্রিসভার সেই বৈঠক। অমিত শাহের একদিকে ছিলেন মোদী আর অন্যদিকে রাজনাথ।

২২ জুলাই আদবাণীর সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় অমিত শাহের। গত ১৪ দিনে সাক্ষাৎ হয়েছে বাংলার একাধিক বিজেপি নেতার সঙ্গে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গেও দেখা হয়েছে তাঁর।

অমিতের সঙ্গে দেখা করেন বাবুল সুপ্রিয়, স্বপন দাশগুপ্ত, দেবশ্রী চৌধুরী, সৌমিত্র খাঁ, নিশীথ প্রামাণিক। দেখা করেন জাভড়েকর, গজেন্দ্র সিংহ শেখাওয়াতও।

অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর সামনে আসতেই বাবুল তাঁর টুইটে লেখেন, “একদিন আগেই অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করেছিলাম। চিকিত্সকরা বলছেন, আমি যেন নিজেকে পরিবারের থেকে কয়েকদিন নিজেকে আলাদা করে রাখি। একইসঙ্গে যেন কোভিড টেস্টটাও করিয়ে নিই। স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী সবটাই করব।”

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা