নয়াদিল্লি: এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বেনজির আক্রমণ কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়ম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের। ‘তৃণমূলকে লম্বা সময়ের জন্য কোয়ারেন্টাইনে পাঠাবে বাংলার আমজনতা।’ শনিবার উত্তরবঙ্গ বিজেপির ভার্চুয়াল সভায় এমনই মন্তব্য করেছেন কেন্ত্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান।

এদিন ভার্চুয়াল এই সভায় দিল্লি থেকে বাংলার শাসকদলকে এই ভাষায় আক্রমণ করেন ধর্মেন্দ্র প্রধান। একইভাবে কলকাতায় রাজ্য বিজেপির সদর কার্যালয়েও ভার্চুয়াল সভায় বক্তব্য রাখেন বিজেপি নেতারা।

লক্ষ্য ২০২১-এর বিধানসভা ভোট। করোনা আবহে প্রকাশ্য সমাবেশ করা যাচ্ছে না। তবে একের পর এক ভার্চুয়াল সভায় রাজ্যের শাসকদলকে তোপ দেগে চলেছেন বিজেপি নেতারা।

এর আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির শীর্ষ নেতা অমিত শাহও এমনই ভার্চুয়াল সভায় বক্তব্য রেখেছিলেন। তিনিও চাঁচাচোলা ভাষায় তৃণমূল নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছিলেন। একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূমিকারও তীব্র সমালোচনা করেছিলেন শাহ।

তবে এদিন আক্রমণের সুর আরও চড়ালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। উত্তরবঙ্গ বিজেপির ভার্চুয়াল সভা ছিল শনিবার। দিল্লির কার্যালয় থেকে পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূলকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ শানিয়ে ধর্মেন্দ্র প্রধান বলেন, ‘পরিযায়ী ইস্যুতে শ্রমিকদের সঙ্গে অমানবিক ব্যবহার করেছে তৃণমূলের সরকার। প্রথমে তো পরিযায়ীদের ফেরাতে টালবাহানা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।’

এছাড়াও শাসকদল তৃণমূলের মদতে রাজ্যের একের পর এক দুর্নীতি চলছে বলেও অভিযোগ করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। লকডাউনের জেরে রেশনে চাল ও পরে আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ বিলি নিয়ে বাংলায় সীমাহীন দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ ধর্মেন্দ্র প্রধানের।

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘করোনায় চাল ও আমফানে ত্রাণের টাকা নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতি করেছে শাসকদল। তৃণমূলকে এবার লম্বা সময়ের জন্য কোয়ারেন্টাইনে পাঠাবে বাংলার আমজনতা।’

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV